চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যে ব্রেকআপে বেশি কষ্ট

আমৃত্যু একে অপরের হয়ে থাকার প্রতিশ্রুতি দেওয়ার দুই মাস পার হওয়ার আগেই ব্রেকআপ! সম্পর্কগুলো এখন এমনই হয়ে গেছে। প্রেম যেহেতু আবেগের বিষয়, তাই ব্রেকআপ হলে কষ্ট তো পেতেই হয়। তবে গবেষকরা বলছেন, সম্পর্কে তৃতীয় ব্যক্তির আগমনের কারণে ব্রেকআপ হলে, মনকে সামলানো বেশি কঠিন হয়ে যায়।

ব্রেকআপের নানা কারণ থাকতে পারে। সঙ্গী মানসিক কষ্ট দিলে, দুজনে আরেকটু সময় নিতে চাইলে, বনিবনা না হলে, আগ্রহ হারিয়ে ফেললে সম্পর্ক ভেঙ্গে যেতে পারে। তবে পারসোনালিটি এন্ড সোশ্যাল সাইকোলজি বুলেটিন এ প্রকাশিত করনেল ইউনিভার্সিটির একটি গবেষণায় জানা গেছে, অন্য কোনো ব্যক্তির কারণে প্রেমে প্রতারিত বা প্রত্যাখ্যাত হওয়া, ব্রেকআপের সবচাইতে খারাপ ধরন। বিষয়টির নাম দেয়া হয়েছে ‘কমপ্যারেটিভলি রিজেকশন।’ব্রেকআপ

জরিপে ৬০০ জন অংশগ্রহণ করেছিলেন। চার ধরণের এক্সপেরিমেন্ট চালানো হয়েছে তাদের ওপর। প্রথম এক্সপেরিমেন্ট করা হয়েছে দুজন নারী এবং একজন পুরুষের উপর। দুই নারী আগেই জানতেন এক্সপেরিমেন্টের ব্যাপারে। কিন্তু পুরুষটিকে কিছু জানানো হয়নি। একজন নারীকে একটা ধাঁধা সমাধান করতে বলা হয়েছে। এজন্য তিনি সেই পুরুষ কিংবা অপর নারীটির সাহায্য নিতে পারবেন। সেই নারীকে আগেই বলে দেয়া হয়েছিল পুরুষটির সাহায্য না নিয়ে নিজে অথবা অপর নারীর সাহায্য নেয়ার জন্য। পুরুষটির সাহায্য না নেয়ায় তিনি নিজেকে প্রত্যাখ্যাত মনে করেছেন এবং বিষয়টি মানতে পারছিলেন না।

Advertisement

অন্য তিন ধরনের এক্সপেরিমেন্ট করা হয়েছে বড় গ্রুপের সঙ্গে। তাদেরকে ব্রেকআপের কারণ মনে করতে বলা হয়েছে। দেখা গেছে যাদের তৃতীয় ব্যক্তির কারণে ব্রেকআপ হয়েছে, তাদের মানসিক চাপ অনেক বেশী ছিল। অন্য কারও কারণে প্রত্যাখ্যাত হওয়ার বিষয়টি মন থেকে মেনে নিতে পারেননি তারা। অর্থাৎ চারটি এক্সপেরিমেন্টেই দেখা গেছে নিজে ব্রেকআপ করা কিংবা বনিবনা না হওয়ার কারণে ব্রেকআপ করার চাইতে সম্পর্কে তৃতীয় ব্যক্তির আগমনে ব্রেকআপ হলে বেশী কষ্ট পায় মানুষ।

গবেষণার ফলাফলে জানা যায়, ব্রেকআপের ক্ষেত্রে ননকমপ্যারেটিভ রিজেকশনের চাইতে কমপ্যারেটিভ রিজেকশনে বেশী কষ্ট পেতে হবে। কারণ প্রত্যাখ্যাত হলে প্রিয়জনকে আরও বেশী মনে পরে এবং তাকে ছাড়া থাকার বিষয়টি ভীষণ কঠিন মনে হয়। ফলে, কষ্ট পেতে হয় এবং একাকীত্বে ভুগতে হয়। এছাড়াও প্রত্যাখ্যাত হওয়া মানুষটি সারাক্ষণ মনের নানা প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে থাকেন নিজেকে সান্ত্বনা দেয়ার জন্য। এই কষ্ট বহু বছর বয়ে বেড়াতে হয়।

গবেষকরা এরকম পরিস্থিতির জন্য কিছু পরামর্শ দিয়েছেন। অন্য কাউকে ভালোবেসে ফেলার কারণে যদি সম্পর্ক ভাঙ্গেন, তাহলে বিষয়টি তখনই সঙ্গীকে বুঝতে দেয়া উচিত নয়। পারস্পরিক সমঝোতার মাধ্যমে সম্পর্ক থেকে বের হয়ে আসার চেষ্টা করা উচিত এক্ষেত্রে। আর যদি সম্পর্ক ভাঙ্গার পেছনে অন্য কোনো ব্যক্তি না থাকেন, তাহলে সেটা নিশ্চিত করা উচিত সঙ্গীকে। নাহলে নানা দ্বিধায় ব্রেকআপের কষ্ট সামলানো কঠিন হতে পারে সেই মানুষটির জন্য।