চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনের আগে তৈরি হবে না মর্ডানার করোনা ভ্যাকসিন

যুক্তরাষ্ট্রের বায়োটেক সংস্থা মর্ডানা জানিয়েছে, ২৫ নভেম্বরের আগে তারা তাদের করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন চাইবে না।

বুধবার ফিনান্সিয়াল টাইমসকে মর্ডানার সিইও একথা জানান। নির্বাচনের আগে আগে ভ্যাকসিন তৈরি করে ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রচারণায় একটি বড়সড় প্রভাব আনার আশায় এমন খবর একটি বড় ধাক্কা।

বিজ্ঞাপন

স্টিফেন ব্যানসেল সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ২৫ নভেম্বর এমন একটি সময়, যখন আমাদের কাছে পর্যাপ্ত সুরক্ষা তথ্য থাকবে যেগুলো আমরা এফডিএতে(খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন) পাঠাতে পারবো। সুরক্ষা তথ্য ভালো থাকার অর্থই ভ্যাকসিনটিকে নিরাপদ বলে মনে করা হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

করোনাভাইরাস মোকাবেলায় ট্রাম্পের পদক্ষেপ বেশ সমালোটিত হয়েছে। তিনি বারবার বলেও আসছেন ৩ নভেম্বরের আগে যুক্তরাষ্ট্রের ভ্যাকসিন তৈরি হয়ে যাবে। এসব কারণেই বিশেষজ্ঞদের উদ্বেগ যে তার প্রশাসন রাজনৈতিক কারণে নিয়ন্ত্রক প্রক্রিয়ায় হস্তক্ষেপের চেষ্টা করতে পারে।

বিজ্ঞাপন

ডেমোক্রেটিক প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক সহ-রাষ্ট্রপতি জো বিডেনের সাথে বিতর্ক চলাকালে মঙ্গলবার রাতেও তিনি তার বক্তব্যের পুনরাবৃত্তি করেন। বলেন, ১ নভেম্বরের আগেই আমাদের কাছে উত্তর থাকবে।

সারা বিশ্বে যে ১১টি ভ্যাকসিন পরীক্ষণের চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে তার মধ্যে একটি মর্ডানার ভ্যাকসিন। আরেকটি নিয়ে কাজ করছে ফাইজা। তাদের সিইও আলবার্ট বাউরলা বলেন, অক্টোবরের মধ্যে তাদের ভ্যাকসিন কাজ করবে কিনা সে সম্পর্কে একটি স্পষ্ট উত্তর দিতে পারবেন।

তবে এসব দাবি সম্পর্কে অনেক বিশেষজ্ঞই সন্দেহ প্রকাশ করেছেন। তাদের বিশ্বাস, চলমান ট্রায়ালগুলিতে সেই সময়ের মধ্যে ড্রাগের সুরক্ষা এবং কার্যকারিতা প্রমাণ করার জন্য পর্যাপ্ত পরিসংখ্যান তথ্য থাকবে না।

অক্টোবরের মধ্যে ভ্যাকসিন আনার কথা বলে প্রেসিডেন্টকে অনুকূল পরিবেশ তৈরি করে দিচ্ছেন তেমন দাবি অস্বীকার করেন বাউরলা।

বলেন, আমাদের জন্য নির্বাচনের দিনও কৃত্রিম দিন, অক্টোবরের শেষও কৃত্রিম দিন। তারও আগে ভ্যাকসিন আনতে সক্ষম হলে আমরা আনবো।