চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ম্যানসিটিকে ‘বার্সার মতো করে’ গড়তে চান গার্দিওলা

২০০৮ সালে কোচ হওয়ার পর একাডেমির ফুটবলারদের মূল দলে টেনে বার্সেলোনার চেহারাই পাল্টে দিয়েছিলেন পেপ গার্দিওলা। লিওনেল মেসিকে সামনে রেখে জাভি-ইনিয়েস্তা, বুস্কেটস-পিকেদের নিয়মিত একাদশে খেলার সুযোগ করে দেন। নিজেও ছিলেন বার্সার একাডেমির ছাত্র। দলে তরুণ রক্ত কতটা গতি আনতে পারে সেটা তার চেয়ে কেউইবা ভালো জানে!

একই কাজ এখন ম্যানচেস্টার সিটিতে করতে চাইছেন গার্দিওলা। দলকে চাপ দিচ্ছেন একাডেমি থেকে তরুণদের উঠিয়ে আনতে। বৃহস্পতিবার রাতে একাডেমির ফুটবলারদের নিয়ে সাজানো এক দলের সাহায্যে কারাবাও কাপে বোর্নমাউথকে ২-১ গোলে হারানোর পর আরও বেশি সাহস পাচ্ছেন স্প্যানিশ কোচ। ম্যানসিটির হয়ে অভিষেক ম্যাচেই জোড়া গোল করেছেন ১৭ বছর বয়সী লিয়াম ডেলাপ।

বিজ্ঞাপন

অনেকটা বাধ্য হয়েই একাডেমি থেকে তরুণদের নিয়ে কারাবাও কাপে দল সাজান গার্দিওলা। তার সিনিয়র দলের কেবল ১৩ জন বৃহস্পতিবার মাঠে নামার মতো ফিট ছিলেন। কেউ আছেন চোটে, কেউ পেয়েছেন বিশ্রাম। সিটিজেনদের দলে ছিল একাডেমি থেকে উঠে আসা আদ্রিয়ান বার্নাবে, থমাস ডয়েল, টেইলর হারউড-বেলিস ও লিয়াম ডেলাপের মতো নতুন মুখ।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

এক ম্যাচ খেলিয়েই একাডেমি থেকে উঠে আসা প্রতিভাদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ গার্দিওলা। সামনের ভরা সূচিতে এ তরুণদের তার কাজে লাগবে বলেও জানিয়েছেন বার্সা ও বায়ার্ন মিউনিখের সাবেক কোচ।

‘টমি টেইলর, লিয়ামের মতো আমাদের তরুণরা উচ্চ পর্যায়ে খেলছে, দারুণ খেলেছে। সবাই অসাধারণ খেলেছে।’

‘মাত্র ১৭ বছর বয়সে লিয়াম ভিন্ন এক স্ট্রাইকার। শারীরিক গঠনগত দিক থেকে আমরা এমনই চাই। আমরা ট্রেনিংয়ে দেখেছি সে দারুণ ফিনিশার। এখন ঠাণ্ডা মাথায় তার ভবিষ্যৎ নিয়ে কাজ করা উচিৎ। আমরা তার পারফরম্যান্সে উচ্ছ্বসিত।’

‘এখন যে পরিস্থিতি, সামনে আমাদের একাডেমির ফুটবলারদের প্রয়োজন পড়বে। আমাদের মাত্র ১৩ জন ফুটবলার ফিট আছে। এমন সমস্যায় আমাদের সামনের দিকে তাকাতেই হবে। লিয়াম আমাদের সঙ্গে থাকতে পারে, তাকে কাজে লাগবে।’