চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ম্যানচেস্টারে আজ লাল না নীল ঢেউ?

পেপ গার্দিওলার দলের বিরুদ্ধে নামার আগে কি যথেষ্ট আত্মবিশ্বাস জুগিয়ে দিয়েছেন হোসে মরিনহো? নীল সিটির ঘরের মাঠ ইতিহাদে প্রিমিয়ার লিগের মহারণের আগে এমন কানাঘুষাই করছেন লাল ম্যানচেস্টারের অনেক সমর্থক।

দিন-চারেক আগে মরিনহোর টটেনহ্যাম হটস্পারকে ওল্ড ট্রাফোর্ডে হারিয়ে দেয় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। সবশেষ পাঁচ ম্যাচে সেটি ছিল সোলশেয়ারের দলের মাত্র দ্বিতীয় জয়। তারপরও হটস্পারদের হারিয়ে অনেকটা ফুরফুরে মেজাজে রেড ডেভিলরা।

ওই ম্যাচে জয় পেলেও শনিবার পেপ গার্দিওলার দলের বিপক্ষে চ্যালেঞ্জটা ম্যানইউ’র জন্য বেশ চাপেরই। আগের দুই মৌসুমের মতো সিটি বিধ্বংসী খুনে মেজাজে না থাকলেও।

ম্যানইউ কোচ অবশ্য বলেছেন অন্য কথা, ‘আত্মবিশ্বাস বড়ই অদ্ভুত জিনিস। বুধবার টটেনহ্যামের বিপক্ষে যে পারফরম্যান্স ছিল সেটা যেকোনো দলকেই তাতিয়ে দেবে।’

বিজ্ঞাপন

পয়েন্ট তালিকার একনম্বরে থাকা লিভারপুলের (৪৩) চেয়ে ১১ পয়েন্ট পিছিয়ে (৩২) গার্দিওলার ম্যানসিটি। এরপরও অলরেডদের ধরতে মরিয়া সিটি। লাল ম্যানচেস্টারের চিন্তা আবার অন্যটা। তাদের হিসাব শীর্ষ চারে থেকে লিগ শেষ করা।

লিভারপুলকে তাড়া করতে হলে সিটিকে এখন পরপর সব ম্যাচই জিততে হবে। সেটা না হলে এবারের প্রিমিয়ার লিগের শিরোপার আশা ছেড়ে দিতে হবে। সেজন্যেই গার্দিওলার মন্তব্য, ‘দলটার নাম ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। তারা ইউরোপিয়ান ফুটবলে যা করেছে তার জন্য আমি তাদের সম্মান করি। তবে ইতিহাস যতই তাদের পক্ষে থাক, তাদের হারাতে চাই।’

এই ম্যাচে ইনজুরির জন্য সিটি পাচ্ছে না সার্জিও আগুয়েরোকে। ইউনাইটেড তেমনি পাবে না পল পগবাকে। ফরাসি মিডফিল্ডারের গোড়ালির চোট এখনো সারেনি। সোলশেয়ার পেতে পারেন অ্যান্থনি মার্শালকে। গার্দিওলা যেমন পাচ্ছেন জিনচেস্কোকে।

সিটি গোলের জন্য তাকিয়ে থাকবে গ্যাব্রিয়েল জেসাস ও রাহিম স্টার্লিয়ের দিকে। গোলমুখে ম্যানইউ‘র বাজির ঘোড়া মার্কাস র‌্যাশফোর্ড। সব মিলিয়ে ম্যানসিটির আংশিক অফ-ফর্ম জমিয়ে দিয়েছে ম্যানচেস্টার ডার্বির ‘লাল-নীল’ যুদ্ধ। ম্যাচ বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ১১টায়।

শেয়ার করুন: