চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রতি রমজানে ২০ হাজারের বেশি মানুষকে ইফতার দেই: মিথিলা

ক্যামেরার সামনে তানজিয়া জামান মিথিলাকে মানুষ সবসময় ভিন্নভাবে দেখে থাকেন। তবে গ্ল্যামার জগতের পিছনের মিথিলা অন্যরকম! অন্তত তিনি নিজে এমনটাই মনে করেন!

প্রতিবছর রমজান মাস এলে নিজ উদ্যোগে হাজার হাজার মানুষকে ইফতার করান মিথিলা। গত কয়েক বছর ধরে মিথিলা এ কাজ করে আসছেন বলে চ্যানেল আই অনলাইনকে জানালেন।

সদ্য ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’ হয়েছেন মিথিলা। প্রায় পাঁচ হাজার প্রতিযোগী টপকে তার মাথায় উঠেছে ‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ’র মুকুট। আগামী ১৬ মে যুক্তরাষ্ট্রে ৬৯ তম মিস ইউনিভার্স-২০২০ প্রতিযোগিতার মূল আয়োজন উদ্বোধন করা হবে। সেখানে বাংলাদেশের প্রতিনিধি হয়ে অংশ নিতে মে মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে ঢাকা ছাড়বেন মিথিলা।

তার অংশ হিসেবে ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ’ ভিডিও নির্মাণের জন্য ঢাকার বাইরে আছেন তিনি। হাজারও মানুষকে ইফতার করানো প্রসঙ্গে মিথিলা মুঠোফোনে জানান, একা নন, দলগতভাবে প্রতিবছর মানুষদের ইফতার করান। শুটিং বা অন্যান্য কাজের কারণে সবসময় তিনি নিজে উপস্থিত থেকে ইফতার করাতে পারেন না। তবে সহযোগিরা থাকে। আবির নামে একজন আছেন। তিনি সবকিছু ফ্রন্টলাইনে থেকে দেখভাল করেন।

শুধু রমজান নয়, মিথিলা জানান বছরের অন্য সময়েও অসচ্ছ্বল মানুষদের পাশে দাঁড়ায় তার ‘রাইজিং স্টার চ্যারিটি’

বিজ্ঞাপন

মিথিলা বলেন, আমার ‘রাইজিং স্টার চ্যারিটি’ নামে একটি সংগঠন রয়েছে। সেটার মাধ্যমে ইফতার প্রদান করি। শুধু ঢাকা নয়, ফরিদপুর, গাজীপুরসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় প্রতিদিন অসচ্ছল মানুষদের কাছে এই ইফতার পৌঁছে যায়। শুধু এ বছর নয়, কাজটি আমি গত কয়েক বছর ধরে করে আসছি। প্রতিবছর রমজান মাসজুড়ে ২০ হাজারের বেশি মানুষদের ইফতার দেই।

এই কাজটি পুরোপুরি ব্যক্তিগতভাবে করে থাকেন বলে জানালেন বিলবোর্ড ও র‍্যাম্প মডেলিংয়ের জনপ্রিয় মুখ মিথিলা।

‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ ২০২০’ মিথিলা যুক্তরাষ্টের ফ্লোরিডায় মিস ইউনিভার্সের মূল মঞ্চে বাংলাদেশের প্রতিনিধি হয়ে লড়তে যাচ্ছেন। সেখানে অংশ নিয়ে এগিয়ে থাকার জন্য তিনি সকলের কাছে ভোট চেয়েছেন।

তিনি বলেন, মিস ইউনিভার্সের মঞ্চে ভোটিং খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বিজয়ী হতে এটা খুব দরকার। তাই বাংলাদেশের মানুষের কাছে আমার চাওয়া, তারা যেন আমাকে ভোট দেন। ওয়েবসাইটের প্রতিযোগী বিভাগে গিয়ে ছবিতে ক্লিক করে ভোট করার অপশন রাখা হয়েছে বলেও জানান তিনি

মিথিলা বলেন, সেখানকার সবাই যেন বলে বাংলাদেশি মেয়ের সবকিছু ভালো। আমার টার্গেট সম্মানজনক অবস্থান। সবার সাপোর্ট পেলেই অবশ্যই ভালো কিছু করতে পারবো।

বিজ্ঞাপন