চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মাদক মামলায় সন্তান গ্রেফতার হওয়ার পর যা করেছিলেন জ্যাকি চ্যান 

কুংফু সুপারস্টার জ্যাকি চ্যান পর্দায় অনেকবারই মাদক ব্যবসায়ীদের শায়েস্তা করেছেন। কিন্তু ব্যক্তিজীবনে তার ছেলেকেই মাদক মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছিল। তখন প্রকাশ্যে অভিনেতা বলেছিলেন, ‘আমি লজ্জিত।’

মাদকদ্রব্য বহনের কারণে ২০১৪ সালের ১৮ আগস্ট জ্যাকি চ্যানের ছেলেকে আটক করেছিল বেইজিং পুলিশ। জ্যাকি চ্যানের ছেলে জেসি চ্যান চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন দুই মাধ্যমেই জনপ্রিয় তারকা সেই সময়ে। ফ্যাং জুমিং নামেই তিনি বেশি পরিচিত।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

জেসিকে জিজ্ঞেস করে পুলিশ জানতে পেরেছিল, অনেক বড় তারকাই তার অ্যাপার্টমেন্টে আসতেন মাদক সেবন করতে এবং কিনতে।

মাদকের সাথে জেসির সম্পৃক্ততার খবর যখন প্রকাশ্যে আসে, জ্যাকি চ্যান বিব্রত বোধ করেন। সেই সময়ে অভিনেতা মিডিয়ার সামনে এসে পুরো পৃথিবীর কাছে ক্ষমা চান এবং বলেন, ‘আমি খুবই লজ্জিত।’ সামাজিক মাধ্যমে অভিনেতা তখন লিখেছেন, ‘আমি আমার সন্তানের কাজের কারণে খুবই রাগান্বিত এবং লজ্জিত।’

মাদক মামলায় ছয় মাসের জেল হয়েছিল জেসি চ্যানের। জেসি ক্ষমা চেয়েছিলেন এবং এরপরে আর ভুল না করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। সাজা খেটে কারাগার থেকে বের হওয়ার পর সংবাদ সম্মেলন করে ভুল শিকার করে ক্ষমা চেয়েছিলেন জেসি। কইমই