চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ভ্যাকসিন আনতে চীনের উদ্দেশে বিমান বাহিনীর উড়োজাহাজ

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে পাঁচ লাখ ভ্যাকসিন আনতে চীনের উদ্দেশে যাত্রা করেছে বিমান বাহিনীর একটি উড়োজাহাজ।

আজ মঙ্গলবার সকাল ৮টা ১২ মিনিটে বিমান বাহিনীর একটি সি-১৩০জে পরিবহন বিমান চীনের উদ্দেশে যাত্রা করে।

মঙ্গলবার দুপুরে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) সহকারী পরিচালক মো. নূর ইসলামের সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর একটি সি-১৩০জে পরিবহন বিমান আজ মঙ্গলবার সকাল ৮ টা ১২ মিনিটে করোনাভাইরাসের পাঁচ লাখ ভ্যাকসিন আনতে চীনের উদ্দেশে যাত্রা করেছে।

ঢাকায় অবস্থিত চীনা দূতাবাসের এক বার্তায় এ তথ্য জানানো হয় আগামিকাল বুধবার এসব ভ্যাকসিন ঢাকায় এসে পৌঁছাবে।

বিজ্ঞাপন

ঢাকার চীনা দূতাবাস জানায়, বাংলাদেশকে যে ৫ লাখ ভ্যাকসিন উপহার দেওয়া হবে, সে ভ্যাকসিনের প্যাকিং সম্পন্ন হয়েছে। এই ভ্যাকসিনগুলো কোম্পানি থেকে একটি কাভার্ড ভ্যানযোগে বেইজিং এয়ারপোর্টে নেওয়া হয়েছে। এয়ারপোর্ট থেকে বিমানযোগে ঢাকায় আসবে।

ঢাকায় নিযুক্ত চীনের ডেপুটি চিফ অব মিশন হুয়ালং ইয়ান জানিয়েছেন, বাংলাদেশে পাঠানোর জন্য চীনের ভ্যাকসিনগুলো প্রস্তুত। বর্তমানে ভ্যাকসিনগুলো বেইজিং আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে রয়েছে।

ঢাকায় নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত লি জিমিং গতকাল সোমবার জানান, করোনা মহামারি মোকাবেলায় বাংলাদেশকে সহায়তা দেবে। এ লক্ষ্যে সিনোফার্মের ৫ লাখ ভ্যাকসিন দেবে। এই টিকা আগামী ১২ মে আসবে।

চলতি মাসের ৭ তারিখে চীনের রাষ্ট্রায়ত্ত ওষুধ কোম্পানি সিনোফার্মের তৈরি করা করোনাভাইরাসের টিকা জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দেয় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা- ডব্লিউএইচও।

এরআগে গত ২৯ এপ্রিল বাংলাদেশ সরকার চীনের সিনোফার্মের ভ্যাকসিন জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের অনুমোদন দেয়।

বিজ্ঞাপন