চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ব্রিটনির অভিযোগ খতিয়ে দেখার অনুরোধে আদালতে বাবা

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে এক বিশেষ শুনানিতে হাজির হয়ে পপ তারকা ব্রিটনি স্পিয়ার্স তার ব্যক্তিগত জীবন ও সম্পদ নিয়ন্ত্রণে বাবাকে আইনি অধিকার দেওয়ার সিদ্ধান্তের কঠোর সমালোচনা করেছেন।

বুধবার ব্রিটনির বাবা আদালতে বেশ কিছু নথিপত্র জমা দিয়েছেন এবং ব্রিটনির অভিযোগ তদন্ত করে সত্যতা খুঁজতে বলেছেন।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

২০০৭ সালে স্বামী কেভিন ফেডারলাইনের সঙ্গে বিয়ে বিচ্ছেদের পর মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন ব্রিটনি। সেসময় মেয়ের ব্যক্তিগত জীবন ও অর্থ-সম্পত্তি দেখাশোনার জন্য আইনি তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে নিযুক্ত হন বাবা জেমি স্পিয়ার্স। ১৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে তিনি ব্রিটনি ও তার সম্পত্তির নিয়ন্ত্রণে নিযুক্ত।

বিজ্ঞাপন

বাবার নিয়ন্ত্রণ থেকে বের হয়ে আসতে চাইছেন ৩৯ বছর বয়সী মার্কিন তারকা ব্রিটনি। ২৩ জুন শুনানিতে ব্রিটনি জানান, তাকে লাইভ শো করতে বাধ্য করা হচ্ছে এবং জন্মনিয়ন্ত্রণে বাধ্য করা হচ্ছে।

নিউইয়র্ক টাইমসের রিপোর্টে জানা গেছে, ব্রিটনির বাবা আদালতে অনুরোধ করেছেন ব্রিটনির অভিযোগ তদন্ত করে সত্যতা যাচাই করে দেখার জন্য। বুধবার তিনি বেশ কিছু নথিপত্রসহ হাইকোর্টে গিয়ে এই অনুরোধ করে এসেছেন।

জেমি স্পিয়ার্স দাবী করেছেন, মেয়ের আইনি তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে তার ভালোর জন্য যা যা করা উচিত, সবই তিনি করেছেন। ব্রিটনির ব্যক্তিগত সিদ্ধান্তের ওপরেও তার অধিকার আছে।