চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ব্যাটে-বলে জয়ের নায়ক মোসাদ্দেক

জয়ে টিকে থাকল বাংলাদেশ

শুক্রবার এসিসি ইমার্জিং কাপে হংকং অনূর্ধ্ব-২৩ দলের বিপক্ষে ২৮ রানের স্বস্তির জয় পেয়েছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দল।

আরব আমিরাতের বিপক্ষে রানের খাতাই খুলতে পারেননি। হংকংয়ের বিপক্ষে সেখান থেকেই ঘুরে দাঁড়ালেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। ব্যাট হাতে দারুণ এক সেঞ্চুরির পর বল হাতেও বাংলাদেশের জয়ে নেতৃত্ব দিলেন জাতীয় দলের বাইরে থাকা অলরাউন্ডার।

এই জয়ের পরও অবশ্য পুরোপুরি স্বস্তিতে নেই নুরুল হাসান সোহানের দল। পরের রাউন্ডে যেতে হলে ৯ ডিসেম্বর স্বাগতিক পাকিস্তানের বিপক্ষে জয়ের কোনো বিকল্প পথ নেই ইমার্জিং টাইগারদের।

আগের দিন আরব আমিরাতের কাছে অপ্রত্যাশিত হারের ক্ষত ভোলার মিশনে হংকংয়ের বিপক্ষে প্রথমে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। নেমে শুরুতেই মিজানুর রহমানের (৮) উইকেট হারায়।

সেখান থেকে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে টাইগারদের গোছানো অবস্থানে পৌঁছে দেন জাকির হাসেন ও নাজমুল হোসেন শান্ত। ৪৯ রানে জাকির ও ৩৬ রানে শান্ত ফিরতে হাল ধরেন মোসাদ্দেক।

উইকেটে দাঁড়িয়ে দ্রুতলয়েই ব্যাট চালিয়েছেন মোসাদ্দেক। ৮ চারের সঙ্গে ৩ ছক্কার ইনিংস তার। ঠিক ১০০ রানের ইনিংসটি ৮৬ বলের।

৯০ রানের জুটিতে মোসাদ্দেককে যোগ্য সঙ্গ দিয়েছেন ৪৫ রান করা ইয়াসির আলী। এ দুজন ফিরতেই তিনশর সুবাস পেতে থাকা বাংলাদেশের ইনিংস আটকে যায় ৮ উইকেটে ২৮৬ রানে।

মাঝে অধিনায়ক সোহান ১৩ বলে ২০ এবং অলরাউন্ডার আফিফ হোসেন ধ্রুব ২৫ বলে ২০ রানের অবদান রাখেন।

২৮৭ রানের চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্যে নেমে জবাবটা ভালোই দিচ্ছিল হংকং। ওপেনার নিজাকাত খানের ৯২ ও বাবর হায়াতের ৯১ রানে ভর করে বাংলাদেশকে হারের ভয়ও দেখাচ্ছিল।

নিজাকাত ও বাবরের বাইরে আর কোনো ব্যাটসম্যান থিতু হতে পারেননি বাংলাদেশি বোলারদের সামনে। জয়ের ২৮ রান দূরে থাকতে ৭ উইকেট ২৫৮ রানে থামে হংকংয়ের ইনিংস।

টাইগার বোলারদের মধ্যে সফল জয়ের ভিত গড়া রান আনা মোসাদ্দেকই। ৪ ওভার বল করে ২৩ রানে ২ উইকেট নিয়েছেন এ অলরাউন্ডার। পেসার খালেদ আহমেদও ২টি উইকেট নিয়েছেন। শরিফুল ও নাঈমের ঝুলিতে গেছে একটি করে উইকেট।