চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বিসিএলের পর ইন্ডিপেনডেন্স কাপও মধ্যাঞ্চলের

সাকিব আল হাসানের না থাকা, প্রতিপক্ষের সঙ্গে শেষ দেখাতে হার আর বিপক্ষে অন্যতম বোলারের একাদশে ফেরার দিনেও শিরোপা নিজেদের করে নিল ওয়ালটন মধ্যাঞ্চল। প্রথম শ্রেণির টুর্নামেন্ট বিসিএলের পর জিতল ইন্ডিপেনডেন্স কাপও।

সিলেটে শিরোপার লড়াইয়ে সৌম্য-মিথুনদের বিপক্ষে তেমন কিছু করে দেখাতে পারল না বিসিবি দক্ষিণাঞ্চল। ব্যাটিং ব্যর্থতার দিনে অল্প পুঁজিতেও লড়াই তেমন একটা জমাতে পারেননি মোস্তাফিজ-নাসুমরা। ১৬৪ রানের লক্ষ্য ছুড়ে হেরেছে ৬ উইকেটের বড় ব্যবধানে।

শনিবার ফাইনালে টসে হেরে আগে ব্যাটিংয়ে নামা বিসিবি দক্ষিণাঞ্চলের দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান সহজেই খেলছিলেন। কিন্তু দলীয় পঞ্চাশ রানের মাথায় ভুল করে বসেন এনামুল হক বিজয়। অপুর বলে ৩৪ বলে ২০ রান করে ফেরেন এই উইকেটকিপার ব্যাটার।

পরের পঞ্চাশ যোগ করতে দক্ষিণাঞ্চল হারায় আরও তিন ব্যাটারকে। ধাক্কাটা আরও বাড়ায় আসরে দুর্দান্ত বল করা মোসাদ্দেক। শেষের দিকে নাহিদুল ইসলামের লড়াকু ৩১ রানের ইনিংসে দেড়শ পার করে এনামুল-জাকিররা। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৩৫ রান করেন ওপেনার পিনাক ঘোষ।

বিজ্ঞাপন

দক্ষিণাঞ্চলের ব্যর্থতার দিনে দারুণ কাটিয়েছে মধ্যাঞ্চলের বোলাররা। দুটি করে উইকেট ভাগাভাগি করে নিয়েছেন পাঁচ বোলার। ৫ ওভার বল করে নিজের ঝুলিতে কোনো শিকার রাখতে পারেননি রবিউল হক। নাজমুল ইসলাম অপু ১০ ওভারে ২৮ রান খরচায় নিয়েছেন দুটি উইকেট।

সহজ লক্ষ্যে দারুণ শুরু এনে দেন মধ্যাঞ্চলের মিজানুর রহমান ও সৌম্য সরকার। ২৫ বলে ২১ রান করে সৌম্য ফিরলে বেশি সময় থাকতে পারেননি আবদুল মাজিদ। উইকেটরক্ষক ব্যাটার মিথুন (৪) এদিন ব্যর্থ হন। বিনা উইকেটে ৬৫ রান করা দল ২০ রানের মাঝে হারায় টপ অর্ডারের চার অভিজ্ঞ ব্যাটারকে।

অবশ্য দলের চাপ আর বাড়ায়নি দুই মিডল অর্ডার ব্যাটার মোসাদ্দেক-আল আমিন। অবিচ্ছিন্ন ৯০ রানের জুটিতে শিরোপা জিতে ফেরেন ডাগ আউটে। ফাইনালে দলের খারাপ সময়ে নেমে ৬৯ বলে ৫৩ রান করেন আল আমিন। ইনিংস সাজান ৬টি চারের মারে। সঙ্গী এবং অধিনায়ক মোসাদ্দেক ৮৫ বল থেকে ৩৩ রানে অপরাজিত ছিলেন।

এর আগে, প্রথম শ্রেণির ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টুর্নামেন্ট বিসিএল টি-টোয়েন্টিও কাপের শিরোপাও নিজেদের ঘরে তুলেছে মধ্যাঞ্চল। এবার ৫০ ওভারের টুর্নামেন্ট ইনডিপেনডেন্স কাপের শিরোপা পেল সৌম্য-মোসাদ্দেকরা।

বিজ্ঞাপন