চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বিশ্বকাপ জয়ের বছরে দেশের ক্রিকেটে আলোচিত যা কিছু

সালতামামি-২০২০

অনেক সম্ভাবনা, অনেক স্বপ্ন, অনেক প্রত্যাশা নিয়ে শুরু হয়েছিল ২০২০ সাল। বাংলাদেশ ক্রিকেট সবচেয়ে বড় অর্জনে নাম লেখায় বছরের শুরুতেই। করোনার থাবায় পুরোবিশ্ব এলোমেলো হয়ে যাওয়ার আগে বিশ্বজয়ের সাফল্য আসে আকবর আলীদের হাত ধরে।

গত ৯ ফেব্রুয়ারি সাউথ আফ্রিকার পচেফস্ট্রুমে ভারতকে হারিয়ে যুব বিশ্বকাপের ট্রফি উঁচিয়ে ধরেন টাইগার যুবারা। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে টাইগারদের তিন যুগের পথচলায় বিশ্বজয়ের গৌরবোজ্জ্বল উপলক্ষ আর আসেনি।

বিজ্ঞাপন

ক্রিকেটে যেখানে ব্যস্ততম বছর হওয়ার কথা ২০২০ সালের, সেখানে বছরের বেশিরভাগ সময় ঘরবন্দি কাটাতে হয়েছে সিনিয়র-জুনিয়র-নারী দলের সকলকেই। দুয়ারে যখন কড়া নাড়ছে আরেকটি বছর, তখন পেছনে ফেলতে যাওয়া বছরের কিছু খণ্ডচিত্র তুলে ধরা হল চ্যানেল আই অনলাইনের পাঠকদের জন্য।

নেতৃত্ব ছাড়লেন মাশরাফী
৫ মার্চ, সিলেটে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তৃতীয় ওয়ানডের ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে এসে মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা জানিয়ে দেন অধিনায়ক হিসেবে এটিই তার শেষ ম্যাচ। কোনোরকম পূর্বাভাস ছাড়াই তার নেতৃত্ব ছাড়ার সিদ্ধান্ত অবাক করে সবাইকে। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন ও নিজের পরিবারের মানুষ ছাড়া কাউকেই জানতে দেননি এমন সিদ্ধান্ত আসতে যাচ্ছে। সাংবাদিকদেরও বুঝে ওঠার সুযোগ দেননি। কেউ ধারণাও করতে পারেননি বাংলাদেশের সবচেয়ে সফল ওয়ানডে অধিনায়কের মুখ থেকে এমন ঘোষণা আসতে যাচ্ছে।

সেদিন সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর মাশরাফীর উপলব্ধি হয়েছে অনেক নেতৃত্ব দেয়া হল, এবার থামব। দুপুর গড়াতেই আনুষ্ঠানিক ঘোষণা। এরপর ৩৫ মিনিট ধরে চলে প্রশ্নোত্তর পর্ব। নিজের ইচ্ছায় নেতৃত্ব ছাড়লেন নাকি বিসিবি থেকে চাপ ছিল- এ প্রশ্নে মাশরাফী সরাসরি বলেন, সিদ্ধান্তটা আমিই নিয়েছি। কয়েকদিন পর তামিম ইকবালকে দেয়া হয় নেতৃত্বের ভার। করোনার কারণে অধিনায়ক হিসেবে টাইগার ওপেনারের মাঠে নামা হয়নি এখনো।

করোনার থাবা ক্রিকেটে
জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডের পর টি-টুয়েন্টি সিরিজ শেষ হতেই বাংলাদেশে হানা দেয় করোনাভাইরাস। যদিও বিসিবি সাহস দেখিয়েছিল ঘরোয়া লিগ আয়োজনের। মাঠে গড়ায় ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ। ১৫ ও ১৬ মার্চ এক রাউন্ড হওয়ার পর স্থগিত হয়ে যায় লিগও, পাশাপাশি সবধরনের ক্রিকেট। তাতে সাধারণ ক্রিকেটারদের জীবন-জীবিকা গভীর সংকটে পড়ে। বিসিবি ও জাতীয় দলের কয়েকজন তারকা ক্রিকেটার এগিয়ে আসেন সকলের পাশে।

স্থগিত একের পর এক সিরিজ
জুলাইয়ে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে শ্রীলঙ্কা সফরে যাওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশের। একের পর এক সিরিজ স্থগিতের মিছিলে যোগ হয় সেটির ভাগ্যও। করোনাভাইরাসের কারণে চারটি টেস্ট সিরিজ পিছিয়ে যায় বাংলাদেশের। পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ডের পর লঙ্কানদের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজটি চলে যায় অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে। নতুন বছরের এপ্রিলে সবশেষ স্থগিত হওয়া সিরিজটি খেলার জন্য আলোচনা চলছে দুই দেশের বোর্ডের মধ্যে।

বিজ্ঞাপন

ভিন্ন আমেজের ঘরোয়া আসর
করোনা বিরতি কাটিয়ে শ্রীলঙ্কা সফর দিয়ে মাঠে ফেরার কথা ছিল মুশফিক-তামিমদের। কিন্তু সিরিজ নিয়ে জটিলতা দেখা দেয়ায় অক্টোবরে তিন দলের ওয়ানডে আসর প্রেসিডেন্টস কাপ আয়োজন করে বিসিবি। এটি দিয়ে মাঠে ফেরেন দেশের শীর্ষ ক্রিকেটাররা। পরে সিরিজটি স্থগিত হয়ে গেলে তড়িঘড়ি করে ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টুয়েন্টি টুর্নামেন্ট বঙ্গবন্ধু কাপ আয়োজন করে বিসিবি। এতে অংশ নেয় পাঁচ দল। বিশ্বজয়ী যুবারাও সুযোগ পান খেলার। তরুণরা নজর কেড়ে নেন ব্যাট-বলে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দিয়েছিল।

মেয়েদের আইপিএলে দুর্দান্ত সালমা
ফাইনালে ৪ ওভারে ১৮ রান দিয়ে ৩ উইকেট। গুরুত্বপূর্ণ সময়ে বোলিংয়ে এসে ম্যাচজয়ী স্পেল। মেয়েদের আইপিএল হিসেবে সমাদৃত টি-টুয়েন্টি চ্যালেঞ্জে ট্রেইলব্লেজার্সকে চ্যাম্পিয়ন করাতে দুর্দান্ত অবদান রাখেন বাংলাদেশের টি-টুয়েন্টি অধিনায়ক, অফস্পিনিং অলরাউন্ডার সালমা খাতুন। প্রথমবার ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে সুযোগ পেয়েই রাখেন সক্ষমতার ছাপ।

ছেলেদের আইপিএলে বাংলাদেশের কোনো খেলোয়াড়কে না দেখা গেলেও এবছর মেয়েদের আইপিএলে সুযোগ পেয়েছেন দেশের দুই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার সালমা খাতুন ও জাহানারা আলম। করোনার প্রকোপে মার্চে টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপের পর থেকে খেলার বাইরে বাংলাদেশ নারী দল। ছেলেদের দলীয় অনুশীলন ও দুটি আসর হলেও মেয়েদের ক্রিকেট মাঠে নামতে পারেনি এবছর। নতুন বছরের শুরুতে হবে ক্যাম্প। ৩ জানুয়ারি সিলেটে একমাসের স্কিল ক্যাম্পের জন্য ডাকা হয়েছে ২৯ ক্রিকেটারকে।

সাকিবের ফেরা
আইসিসির নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ২৪ নভেম্বর মাঠে ফেরেন সাকিব আল হাসান। ১৩ মাসের বেশি সময় পর বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার খেলেন প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে। মিরপুরে বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপের ম্যাচ দিয়ে প্রত্যাবর্তন হয় তার। জেমকন খুলনার হয়ে ব্যাট হাতে ছিলেন বোতলবন্দি। বোলিংয়ে রান কম খরচ করলেও ৯ ম্যাচে নিয়েছেন মাত্র ৬ উইকেট। রান করেছেন মোটে ১১০।

ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট দিয়ে ফেরা সাকিবের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রত্যাবর্তন কেমন হয় দেখতে অপেক্ষা করতে হবে আরও কিছুদিন। ১০ জানুয়ারি তিন ওয়ানডে ও দুটি টেস্ট খেলতে বাংলাদেশে আসছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সিরিজটি দিয়ে ১০ মাস পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরবে বাংলাদেশ।

মুশফিকের প্রশ্নবিদ্ধ আচরণ
খেলা ছাপিয়ে বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপে আলোচনায় চলে আসেন মুশফিকুর রহিম। সতীর্থের সঙ্গে করেন অত্যন্ত বাজে আচরণ। নাসুম আহমেদের গায়ে হাত তুলতে উদ্যত হন এবং সেটি দু-দুবার। যে কারণে জরিমানা গুনতে হয় একসময় বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেয়া অভিজ্ঞ ক্রিকেটারকে।

পাশাপাশি মুশির নামের পাশে যোগ হয় একটি ডিমেরিট পয়েন্ট। আসরের এলিমিনেটর ম্যাচে ফরচুন বরিশালের মুখোমুখি হয়েছিল বেক্সিমকো ঢাকা। বরিশালের রানতাড়ার সময় দুবার সতীর্থ নাসুম আহমেদের দিকে তেড়ে যান ঢাকার অধিনায়ক মুশফিক। তার প্রশ্নবিদ্ধ আচরণে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ওঠে সমালোচনার ঝড়।