চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘বিদেশী হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সরকার বন্ধু রাষ্ট্রদের ভুল তথ্য দিচ্ছে’

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেন, বিদেশীদের হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সরকার তার বিদেশী বন্ধু রাষ্ট্রদের ভুল তথ্যপ্রদানের মাধ্যমে নিজের পক্ষে রাখার চেষ্টা করছে। চক্রান্তের অংশ হিসেবে বিএনপি’র কাউন্সিলর এম এ কাইয়ুমকে ফাঁসানো হয়েছে বলে দাবি করেন বিএনপি চেয়ারপারসন।

রোববার লন্ডনের পার্কপ্লাজায় রিভারব্যাংক হোটেলে বিএনপি কর্তৃক আয়োজিত নাগরিক সভায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বাংলাদেশের বর্তমান পার্লামেন্টকে অবৈধ আখ্যা দিয়ে বলেন, বর্তমান নির্বাচন কমিশনের অধীনে কোনো জাতীয় নির্বাচন হতে পারেনা। নির্বাচন কমিশন দলীয় লোক দ্বারা প্রভাবিত এবং বেশিরভাগ লোকই অপদার্থ। তবে স্থানীয় নির্বাচন দলীয় সরকারের অধীনে হয়না বলে আমরা আগামী স্থানীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবো।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

সভায় বিএনপি চেয়ারপারসন অভিযোগ করে বলেন, দেশে এখন আইনের শাসন নেই। প্রশাসনকে দলীয়করণ করা হয়েছে। লেডি হিটলারের কথা না শুনলেই যে কোনো যোগ্য অফিসারকেও বের করে দেয়া হচ্ছে। দেশকেও দলীয়করণ করার চেষ্টা চলছে।

ঢাকা সিটি এখন চলার অনুপযুক্ত এবং পৃথিবীর সবচে খারাপ শহরের তালিকায় আছে বলে উল্লেখ করেন খালেদা জিয়া বলেন, যুক্তরাজ্য থেকে অনেক ভালো কিছু শেখার আছে। ভবিষ্যতে আমরা ক্ষমতায় গেলে যুক্তরাজ্যের ভালো দিকগুলো বাংলাদেশে প্রয়োগ করবো। 

বিএনপি ঐক্যবদ্ধ আছে ও ঐক্যবদ্ধ থাকবে। তাই বিএনপিকে ভাঙ্গার চেষ্টা ব্যর্থ হবে বলে মন্তব্য করেন বেগম খালেদা জিয়া।

বিএনপি চেয়ারপারসনের সভাকে কেন্দ্র করে আওয়ামীলীগের বিক্ষোভের আশঙ্কায় যুক্তরাজ্য বিএনপির প্রথম দফা সভা বাতিলের পাশাপাশি ১ নভেম্বর, শনিবার কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থায় করে। কিন্তু তাতেও বিক্ষোভ এড়াতে পারেনি বিএনপি।

গতকাল দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও পুত্রবধূ ড. জুবাইদা রহমানকে  নিয়ে সভাস্থলে প্রবেশের মুখেই বিক্ষোভের সম্মুখীন হোন। পরে বিকল্প প্রবেশ পথে সভাস্থলে পৌঁছান বেগম জিয়া।

এর আগে ঈদ-উল- আযহা কে কেন্দ্র করে আয়োজিত বিএনপির শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানেও আওয়ামীলীগের বিক্ষোভের মুভে পড়েন বিএনপি চেয়ারপারসন।এছাড়া দলীয় নেতাকর্মীদের একরকম হট্টোগলের ফলে অনুষ্ঠানটি পণ্ড হয়ে গিয়েছিলো।

Bellow Post-Green View