চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ডুবন্ত বিচার বিভাগ পানিতে নাক উঁচু করে বেঁচে আছে: মওদুদ

সরকার বিচার বিভাগের স্বাধীনতা ধূলিস্মাৎ করে দিয়েছে দাবি করে বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, বিচার বিভাগ ডুবন্ত পানিতে নাক উঁচু করে বেঁচে আছে। বিচার বিভাগ নিয়ে কথা বলার মতো মনোভাবও হারিয়ে গেছে।

বিজ্ঞাপন

শনিবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবে ভাষা সংগ্রামী অলি আহাদের ৫ম এবং সমাজবিজ্ঞানী ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক ড. পিয়াস করিমের ৩য় মৃত্যুবার্ষিকী উপলকক্ষে আয়োজিত স্মরণসভায় তিনি বলেন: ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের পর সরকার বিচার বিভাগকে যেভাবে হেনস্থা করেছে তা লজ্জাজনক। সরকার বিচার বিভাগকে একেবারে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিয়েছে। বিচার বিভাগের পক্ষে মানুষের আর কথা বলার বা আন্দোলন করার সম্ভাবনা নেই।

তিনি বলেন, বিচার বিভাগের প্রতি এমন আচরণের গভীর পরিণতি সরকার উপলব্ধি করতে পারছে না। এখন যেটুকু স্বাধীনতা আছে ভবিষ্যতে আর সেটুকু থাকবে না। বিচারপতিদের যেভাবে লাঞ্ছিত করা হয়েছে এতে আর কেউ সুবিচার করার সাহস পাবে না।

সরকারের সিদ্ধান্তহীনতার কারণে রোহিঙ্গা সংকট প্রকট আকার ধারণ করেছে বলেও মন্তব্য করেন মওদুদ আহমেদ ।

তিনি বলেন, রোঙ্গিাদের প্রতি আমাদের মানবিকতা অবশ্যই আছে। আমরা তাদের সেভাবে সহযোগিতাও করছি। কিন্তু এটিই সমাধান নয়। এভাবে কতদিন? এর সমাধান করতে হবে দ্রুত। রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফিরে যাওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।

মওদুদ বলেন, আমরা আমাদের সব বন্ধুদের হারিয়েছি। ভারত মানবিক সহায়তা দেখিয়েছে, কিন্তু কূটনৈতিক সহায়তা দেয়নি। অথচ সেটাই প্রয়োজন ছিলো। ভারত, চীন, রাশিয়া সবাই সু চি’র পক্ষ নিয়েছে। এমতাবস্থায় এর সমাধান জটিল। এজন্য আন্তর্জাতিকভাবে সমাধানের পন্থা বের করতে হবে।

নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরামের আয়োজনে সভাপতিত্ব করেন একেএম মোয়াজ্জেম হোসেন। বক্তব্য রাখেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, জাতীয় পার্টির মহাসচিব মোস্তফা জামান হায়দার, অলি আহাদের কন্যা ও বিএনপির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার রুমিন ফারহান, আবু নাসের মুহামম্মদ রহমতুল্লাহ প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন