চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বিচার বহির্ভূত হত্যা বন্ধে তিন লেখক সংগঠনের বিবৃতি

বিচার বহির্ভূত হত্যা বন্ধের আহবান জানিয়েছেন তিন লেখক সংগঠন। গণমাধ্যমে পাঠানো এক লিখিত বিবৃতিতে এই আহ্বান জানান তারা।

‘বাংলাদেশ লেখক শিবির’, ‘বাংলাদেশ প্রগতিশীল লেখক সংঘ’ এবং ‘বাংলাদেশ লেখক ঐক্য’ এই তিন লেখক সংগঠন বিচার বহির্ভূত হত্যায় নিন্দা জানিয়ে এই বিবৃতি প্রেরণ করেন।

বিজ্ঞাপন

বিবৃতিতে তারা লিখেছেন, একদিকে মাদক সমস্যা দেশের প্রতিটি পরিবারকে চরম আতঙ্কের মধ্যে রেখেছে অন্যদিকে সেই সমস্যা সমাধানের নামে বিনা বিচারে মানুষ হত্যা সবাইকে আতঙ্কিত করে তুলেছে। দেশের মানুষ মাদক সমস্যার সমাধান চান, কিন্তু সেই সমাধানের নামে স্বাধীন দেশের জনগণের রক্তে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হাত এভাবে রঞ্জিত হতে পারে না!

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ’একটি রাষ্ট্র, সেই রাষ্ট্রে সরকার এবং আইন-আদালত রয়েছে, সুতরাং কোনো অজুহাতেই আইন বহির্ভূত পন্থায় এই নির্মম হত্যাকাণ্ড মেনে নেয়া যায় না!

বিবৃতিতে আরো লেখা হয়, একটি পরিবারের উপার্জনক্ষম মানুষটি যখন হঠাৎ এভাবে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে, তখন ওই পরিবারে কেবল মানসিক দুঃখের ছায়াই নেমে আসে না বরং পরিবারটি আর্থিকভাবে চরম অস্তিত্ব-সংকটের মধ্যে পড়ে। মাদক দূর করার নামে এভাবে অসংখ্য মানুষকে রাস্তার ভিক্ষুকে পরিণত করা হচ্ছে, অসংখ্য নারীকে স্বামীহারা করা হচ্ছে, অসংখ্য শিশুকে পিতৃহীন করা হচ্ছে। টেকনাফের পৌর-কমিশনার একরামের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ ছিল না, তারপরও তাকে হত্যার যে অডিও রেকর্ড দেশের মানুষ শুনতে পেয়েছে, তাতে এই অভিযানের বিরুদ্ধে রীতিমতো সবাই ফুঁসে উঠেছে!

দেশের প্রগতিশীল সকল লেখকের পক্ষ থেকে অনতিবিলম্বে মানবতাবিরোধী এই জঘন্য হত্যাযজ্ঞ বন্ধ করার আহবান জানান তারা। সেই সাথে আইনি প্রক্রিয়ায় সমাজ থেকে মাদক নির্মূলেরও আহবান জানান।

তিন লেখক সংগঠনের পক্ষে গণমাধ্যমে বিবৃতিটি পাঠান- হাসিবুর রহমান, অধ্যাপক কাজী ইকবাল, গোলাম কিবরিয়া পিনু, সাখাওয়াৎ টিপু, অধ্যাপক ফাহমিদুল হক, শওকত হোসেন।

Bellow Post-Green View