চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘বিএনপির নেতারা জাতীয় পার্টিতে যোগ দেবেন’

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন ৩ বছর পরে অনুষ্ঠিত হবে ধরে নিয়ে আগাম প্রস্তুতি হিসেবে জাতীয় পার্টিকে শক্তিশালী করার দিকে মনোযোগ দিয়েছেন পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।

এজন্য বিএনপি থেকে নেতারা জাতীয় পার্টিতে আসলে তাদের স্বাগত জানাবেন তিনি। বিশেষ সাক্ষাতকারে চ্যানেল আই অনলাইনকে এরশাদ বলেন, বিএনপি থেকে কোনো কোনো নেতা জাতীয় পার্টিতে আসতে চান।

আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখেই ইতোমধ্যে জাতীয় পার্টির নেতৃত্বে পরিবর্তন আনা হয়েছে। জোট করার কথাও ভাবছেন পার্টি চেয়ারম্যান এরশাদ। তিন বছর সময় হাতে রেখেই প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। বিভিন্ন দলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে নতুন জোট গড়ার।

সেই সঙ্গে বিএনপিসহ বিভিন্ন দলের জনপ্রিয় নেতারা আসলে তাদের ব্যাপারে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য দলীয় নেতাদের সঙ্গে কথা বলার কথা জানিয়েছেন এরশাদ। তিনি মনে করছেন দলের দূরাবস্থার কারণে বিএনপি নেতারা এখন জাতীয় পার্টিতে যোগ দিতে পারেন।

এরশাদ বলেন, ‘আমিও শুনেছি, তবে কোনো প্রস্তাব পাইনি। তারা যদি আসে দলের নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে অবশ্যই সিদ্ধান্ত নিব। তারা আসলে দলই শক্তিশালি হবে।’

Advertisement

নির্বাচনে না যাওয়া বিএনপি মধ্যবর্তী নির্বাচনের দাবি জানালেও জাতীয় পার্টি প্রধান মনে করছেন নির্ধারিত সময়েই নির্বাচন হবে।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় ২০১৯ এই নির্বাচন হবে।’

জাতীয় পার্টি নেতৃত্বও মনে করছে বিএনপি সাংগঠনিক অবস্থার এখন যে চিত্র; তিনবছর পর নির্বাচনের সময় তা আরো নড়বড়ে হয়ে পড়বে। 

এরশাদ বলেন, ‘যেভাবে মামলা হচ্ছে বিএনপির কোনো অস্তিত্বই থাকবে না,  বিএনপির সঙ্গে জোটে যাওয়ার প্রশ্নই আসে না, ছোট ছোট দলগুলোর সঙ্গে জোট করতে পারি।’

পৌরসভা নির্বাচনে জাপার মাত্র একজন মেয়র হওয়ায় নতুনভাবে ভাবছেন দলের প্রধান এইচ এম এরশাদ।

তিনি বলেছেন, ‘যেভাবেই হোক আগামী নির্বাচনেই ঘুরে দাঁড়াবে জাতীয় পার্টি।’