চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বার্সা ছাড়ার জন্য প্রস্তুত মেসি!

২০২১ সাল পর্যন্ত বার্সেলোনার সঙ্গে চুক্তি আছে লিওনেল মেসির। সেই চুক্তি শেষ হওয়ার পর প্রিয় ক্লাবের সঙ্গে আর কোনো নতুন চুক্তিতে বসবেন না আর্জেন্টাইন মহাতারকা, এমন দাবি করেছে স্প্যানিশ রেডিও কাদেনা সার!

সূত্রের বরাতে ইএসপিএন এফসিও জানাচ্ছে, বার্সার সঙ্গে মেসির দূরত্ব ক্রমেই বাড়ছে। দলের পারফরম্যান্সের বাজে অবস্থা, গত জানুয়ারিতে সাবেক কোচ আর্নেস্টো ভালভার্দেকে বরখাস্ত এবং দলে খেলোয়াড়দের মান নিয়ে মেসির হতাশার কথা জানিয়েছে ইএসপিএন।

বিজ্ঞাপন

মেসি এবং তার বাবা হোর্হে মেসি ক্লাবের বর্তমান চুক্তি নিয়ে কথা বললেও নতুন চুক্তি নিয়ে আর কোনো আগ্রহ দেখাননি। পুরনো সেই চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে ২০১৭ সালে, মেয়াদ ২০২১ পর্যন্ত। চুক্তির ব্যাপারে সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার জন্য কোনো আগ্রহও দেখাননি ছয়বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী ফরোয়ার্ড বা তার প্রতিনিধি।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

মেসি কেনো ক্লাবের উপর রাগান্বিত সেটা অবশ্য সবারই জানা। বর্তমান কোচ কিকে সেতিয়েনের সঙ্গে বলতে গেলে কথাই বলেন না তিনি। সেতিয়েনের অধীনে বার্সার অবস্থাও যাচ্ছেতাই। সেভিয়া, সেল্টা ভিগোর সঙ্গে ড্রয়ের পর গত মঙ্গলবার অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের সঙ্গেও ২-২ গোলে ড্র করে লা লিগা শিরোপা ধরে রাখার লড়াইয়ে পিছলে গেছে কাতালানরা।

শীর্ষে থাকা চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে তাদের পরিষ্কার ব্যবধান এখন চার পয়েন্টের। সেই ম্যাচে ক্যারিয়ারের ৭০০তম গোল পাওয়ার আনন্দ তাই উদযাপন করার সুযোগ হয়নি এলএম টেনের।

সাম্প্রতিক সময়ে আচরণও পাল্টে গেছে মেসির। সারাজীবনই চুপচাপ স্বভাবের মেসি গত দুই বছর ধরে ক্লাবের বিভিন্ন কাণ্ডের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে চলেছেন। গত জানুয়ারিতে ভালভার্দের বরখাস্তের পর স্পোর্টস ডিরেক্টর ও সাবেক সতীর্থ এরিক আবিদালের সঙ্গে প্রকাশ্যে দ্বন্দ্বে জড়িয়েছেন। ফেব্রুয়ারিতে সরাসরি বলেছেন, বর্তমান দল ও পারফরম্যান্স দিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জেতা সম্ভব নয়।

মেসি দ্বন্দ্বে জড়িয়েছেন বার্সা বোর্ড পরিচালকদের সঙ্গেও। করোনার কারণে খেলোয়াড়দের বেতন কাটার সিদ্ধান্তে কঠোর সমালোচনা করতে দেখা গেছে তাকে। খেলার মাঠেও সাম্প্রতিক সময়ে তাকে বেশ আগ্রাসী দেখা গেছে।