চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বাবরি মসজিদ: শুনানি শেষ হলেও রায় হয়নি, আবারও নতুন মোড়

বিতর্কিত রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদের জমি সংক্রান্ত অযোধ্যা মামলার দীর্ঘ শুনানি শেষ হয়েছে। বুধবার নির্ধারিত সময়ের আগেই শেষ হয় শুনানি। তবে শুনানি শেষ হলেও মামলার রায় দেয়নি সুপ্রিম কোর্ট।

অন্যদিকে শুনানির শেষ দিন ছিল নাটকীয়তায় ভরপুর। ভরা আদালতে বিচারকদের সামনেই রাম জন্মভূমির চিহ্নিতকারী মানচিত্রটি ছিঁড়ে ফেলেন মুসলিম পক্ষের আইনজাবী।

বিজ্ঞাপন

মুসলিম পক্ষের আইনজীবীর এই কাজে প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ হন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান আইনজীবী। আদালতের সমস্ত নিয়ম নীতি নষ্ট হয়ে গেছে উল্লেখ করে বলেন: ‘আমরা ওয়াক আউট করব’।

তবে এর আগে প্রধান বিচারপতি বলেন: রাজনৈতিকভাবে সংবেদনশীল রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ জমির বিরোধের শুনানি আজ পাঁচটার মধ্যেই শেষ হবে।

এনটিভি জানিয়েছে, শুনানির রায় না হলেও আবারও নতুন মোড় নিয়েছে এই মামলা। সুপ্রিম কোর্টের মধ্যস্থতাকারী বোর্ড জানিয়েছে, সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড তাদের অভিযোগ প্রত্যাহার করতে চেয়ে আবেদন করেছে। তারা জানিয়েছে, মসজিদের জায়গার ওপর তাদের কোনো অভিযোগ নেই।

বিজ্ঞাপন

পাশাপাশি অযোধ্যার অন্যান্য মসজিদগুলো যেন সরকার সংস্কার করে দেয় সেই প্রস্তাব দিয়েছে তারা। এছাড়া উপযুক্ত কোনো স্থানে তারা আরও একটি মসজিদ নির্মাণ করতে চায় বলে জানিয়েছে।

এর আগে বিকেল ৪টায় সুপ্রিম কোর্টে অযোধ্যা মামলার শুনানি শেষ করা হয়। এদিন অযোধ্যা মামলার শুনানির ৪০তম দিনে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ বলেন: ‘যথেষ্ট হয়েছে। আজই এ মামলার শুনানি শেষ করতে হবে।’

গত ৬ আগস্ট থেকে এ মামলার দৈনিক শুনানি শুরু হয়।

আগামী ১৭ নভেম্বর দেশের প্রধান বিচারপতি পদ থেকে অবসর নেবেন রঞ্জন গগৈ। আশা করা হচ্ছে তার আগেই অযোধ্যা মামলার রায় ঘোষণা করবে সুপ্রিম কোর্ট।

অযোধ্যায় শতাব্দী প্রাচীন বাবরি মসজিদটি ১৯৯২ সালে ভেঙে দেয়া হয়। কিছু হিন্দুত্ববাদীর দাবি ছিল এই মসজিদের জায়গায় রামের জন্মস্থান বলে পরিচিত এই অঞ্চলে একটি প্রাচীন মন্দির ছিল, সেই মন্দিরের ধ্বংসাবশেষের উপরই নির্মিত হয়েছিল মসজিদটি।

বাবরি মসজিদ ধ্বংসের পরে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনায় সারা ভারতে ২ হাজারের বেশি মানুষ মারা গিয়েছিল।

Bellow Post-Green View