চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘বন্দুকযুদ্ধে‘ গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামীসহ নিহত ৩

ময়মনসিংহে গোয়েন্দা পুলিশের পৃথক বন্দুকযুদ্ধে দু’জন এবং হবিগঞ্জে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে একজন নিহত হয়েছে।

এর মধ্যে নিহত একজন ছিনতাইকারী ও মাদক ব্যবসায়ী হলো পাটগুদামের জয়নাল আবেদিনের ছেলে জনি মিয়া (২৬)।

বিজ্ঞাপন

ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)শাহ কামাল আকন্দ জানান, গতরাত সাড়ে ১২টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গোয়েন্দা পুলিশ জানতে পারে চরপুলিয়ামারী এলাকায় কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী ও ছিনতাইকারী অবস্থান করছে।

এ সংবাদে তাদেরকে ধরতে অভিযান চালায় গোয়েন্দা পুলিশ। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে মাদক ব্যবসায়ীরা গুলি ও ঢিল ছোড়ে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুড়লে মাদক ব্যবসায়ী ও ছিনতাইকারীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মাদক ব্যবসায়ী ও ছিনতাইকারী জনিকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে, কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন।

এসময় ঘটনাস্থল থেকে ১৪ রাউন্ড শর্টগানের গুলি, ২০০ গ্রাম হেরোইন ও ১টি ষ্টিলের চাকু উদ্ধার করে পুলিশ। ছিনতাইকারী মাদক ব্যবসায়ী জনি মিয়ার বিরুদ্ধে কোতুয়ালী মডেল থানায় ৩টি মাদকের মামলাসহ ১১ টি মামলা আছে।

অপরদিকে ময়মসিংহের ফুলবাড়িয়ায় গণধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি গোয়েন্দা পুলিশের বন্দুকযুদ্ধে জহিরুল নিহত হয়েছে। নিহত জহিরুল ইসলাম (২০) ফুলবাড়িয়ার কৈয়ারচালা গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে।

বিজ্ঞাপন

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)শাহ কামাল আকন্দ জানান, ডিবি পুলিশের গোপন সংবাদে গতরাত আড়াইটায় ফুলবাড়িয়ার পাট্রিরা কালাদহ ঈদগাঁর সামনে অবস্থানকালে পুলিশ তাদেরকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করলে তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি করে। এসময় পুলিশ আত্মরক্ষার্থে গুলি বের করলে আসামিরা দৌড়ে পালিয়ে যায়।

একজন আসামীকে ঘটনাস্থলে থেকে আহত অবস্থায় একটি পাইপগানসহ গ্রেফতার করে চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন ।

অন্যদিকে হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে বন্দুকযুদ্ধে সোলেমান নামে এক ডাকাত নিহত হয়েছে। রোববার দিবাগত রাত ৩টার দিকে উপজেলার শানখলা ইউনিয়নের ডেওয়াতলী কালিনগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সোলেমান মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া এলাকার বাসিন্দা।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চুনারুঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. নাজমুল হক।

পুলিশ জানায়, রাত ৩টার দিকে একদল ডাকাত ডেওয়াতলী কালিনগর এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে ডাকাতরা তাদের উপর আক্রমন চালায়।

পুলিশ আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুড়লে সোলেমান গুরুতর আহত হয়। এসময় তার অন্য সঙ্গীরা পালিয়ে যায়। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

Bellow Post-Green View