চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ফ্রান্স দূতাবাস ঘেরাওয়ে হেফাজতে ইসলামের গণমিছিল

ফ্রান্সে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)- এর ‘ব্যঙ্গচিত্র’ দেখানোর প্রতিবাদে ঢাকায় দেশটির দূতাবাস ঘেরাওয়ে হেফাজতে ইসলামের গণমিছিলের কর্মসূচি পুলিশের বাধার মুখে শেষ হয়েছে। যদিও সংগঠনটির নেতাকর্মীরা পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে অনেকটা পথ এগিয়ে গিয়ে সমাবেশ করে।

পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী সোমবার হেফাজতে ইসলামের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মী ও সমর্থকরা বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে জমা হতে শুরু করে। পরে গুলশানে ফ্রান্স দূতাবাস অভিমুখে মিছিলসহ যাত্রা করে। কিন্তু শান্তিনগর এলাকায় তাদের বাধা দেয় পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

সে সময় পুলিশের বাধা অতিক্রম করে মালিবাগের দিকে এগিয়ে যায় হেফাজতে ইসলামের কয়েক হাজার নেতাকর্মী। পরে শান্তিনগর এলাকায় সমাবেশে মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরী ও নূর হোসেন কাসেমী বক্তব্য রাখেন।

বিজ্ঞাপন

ওই সমাবেশ থেকে ফ্রান্সের পণ্য বর্জন, ঢাকায় রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার, ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতকে ডেকে এনে কড়া প্রতিবাদ জানানো এবং নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনার দাবি ওঠে।

বক্তারা ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদের পাশাপাশি রাষ্ট্রীয়ভাবে কাদিয়ানীদের অমুসলিম ঘোষণারও দাবি জানান।

এর আগে সোমবার ভোর হওয়ার সাথে সাথে বিভিন্ন স্থান থেকে হেফাজতের নেতাকর্মীরা বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেইটে অবস্থান নেয়। তাতে পল্টন, গুলিস্তান, প্রেসক্লাব হয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

গত শুক্রবার জুমার নামাজের পর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সামনে ‘সম্মিলিত ইসলামি দলগুলো’ ব্যানারে ফ্রান্সের দূতাবাস ঘেরাওয়ের কর্মসূচি ঘোষণা করেন হেফাজতে ইসলামের ঢাকা মহানগর সভাপতি নূর হোসাইন কাসেমী।