চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘ফার্স্টলুক’ এর পেছনে দেড় মাস!

ঘোষণা ছিলো আগেই, শুক্রবার বিকেলে আসতে চলেছে দেশের শীর্ষ তারকা অভিনেতা শাকিব খান অভিনীত ‘লিডার: আমিই বাংলাদেশ’ ছবির ফার্স্টলুক! ঘোষণার পর থেকেই অপেক্ষায় ছিলেন শাকিব ভক্তরা।

শুক্রবার বিকেলে কথামতোই এলো ‘লিডার’ এর ফার্স্টলুক। যা প্রকাশ্যে আসার সঙ্গে সঙ্গেই লুফে নিচ্ছেন বাংলা সিনেমার ভক্ত অনুরাগীরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করেছেন শাকিব নিজেও।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

‘লিডার’ এর ফার্স্টলুকটি শেয়ার করার ঘন্টাখানেকের মধ্যেই অন্তত ২৫ হাজারের মতো রিয়েকশান, এবং এটি নিয়ে মতামত জানিয়েছেন অন্তত তিন হাজার মানুষ। যাদের বেশীর ভাগই তুমুল প্রশংসা করছেন।

ফার্স্টলুক প্রকাশ করেই ‘লিডার’ ছবিটি নিয়ে আগ্রহ বাড়িয়ে দিয়েছেন বলেও মন্তব্য করেছেন অসংখ্য দর্শক। শুধু শাকিব খানের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নয়, চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন গ্রুপ, ছবির নির্মাতা তপু খান ও ছবিটির অন্যান্য কলাকুশলীরাও লিডার এর ফার্স্টলুক শেয়ার করছেন এবং তাদের ইতিবাচক মন্তব্য জানাচ্ছেন।

ছবিটির জন্য এখন থেকেই শুভ কামনাও জানাতে শুরু করেছেন চলচ্চিত্র প্রেমীদের একটি অংশ। সর্বস্তরে ফার্স্টলুক প্রশংসিত হওয়ার কারণ শাকিব খান হলেও এর পেছনের মানুষটিকে কিন্তু কেউ খুব একটা চেনেন না!

বলছি, ‘লিডার’ এর ফার্স্টলুক পোস্টারটির কারিগর সাজ্জাদুল ইসলাম সায়েমের কথা! এই সময়ে বাংলা সিনেমা, নাটকের পোস্টার ডিজাইনে নান্দনিকতার যে ছোঁয়া- তা প্রতিনিয়ত শানিত করে যাচ্ছেন যারা তাদেরই একজন তিনি।

অসংখ্য নাটকের নান্দনিক পোস্টার করেছেন সায়েম। সমানতালে চলচ্চিত্রেরও বেশকিছু নান্দনিক পোস্টার ইতোমধ্যেই তিনি উপহার দিয়েছেন। তারই ধারাবাহিকতায় এবার তিনি করলেন ‘লিডার: আমিই বাংলাদেশ’ সিনেমার ফার্স্টলুক পোস্টার।

চ্যানেল আই অনলাইনকে সায়েম জানান, ‘লিডার’ এর ফার্স্টলুক পোস্টার করতে প্রায় দেড় মাসের মতো সময় লেগেছে।

বিজ্ঞাপন

কথায় আছে, ‘আগে দর্শনধারী, তারপর গুণ বিচারী’! আর এ কারণেই প্রথম দর্শনটা যেন জমকালো হয়, সে কারণেই একটু সময় নিয়েছেন সায়েম।

ফার্স্টলুক কিংবা পোস্টার কোন প্রক্রিয়ায়, কী মাথায় রেখে করেন? এমন প্রশ্নে এই পোস্টার ডিজাইনার জানালেন, ফার্স্টলুক কিংবা কোনো পোস্টার করার আগে আমাকে প্রথমে গল্পটা শুনতে হয়, তারপর পরিকল্পনা করি কীভাবে কাজটা করা যায়। সাধারণত মানুষ যেন পোস্টার দেখে পুরো সিনেমাটিকে রিলেট করতে পারেন, এমনভাবেই পোস্টার ডিজাইনের পরিকল্পনা করি।পোস্টার দিয়ে মানুষকে কনফিউশনে না ফেলানোই আমার উদ্দেশ্য থাকে।

লিডার এর ফার্স্টলুক নিয়ে সায়েম বলেন, পোস্টারে খেয়াল করলে দেখবেন শাকিব ভাইয়ের পেছনে মশাল আন্দোলন। এটা নির্মাতা তপু খান, শাকিব ভাই- তাদের সাথে কথা বলে একেবারে পরিকল্পনামাফিক রাখা। আমার শুধু একটা সাজেশন্স ছিলো, পোস্টারে আমি যা রাখছি, তা যেন সিনেমার দৃশ্যেও থাকে।

এবারই প্রথম নয়, এরআগেও শাকিব খান অভিনীত বেশকিছু সিনেমার পোস্টার করেছেন সায়েম। এরমধ্যে নবাব এল.এল.বি, বীর, পাসওয়ার্ড, শাহেনশাহ, সম্রাট ও সুপারহিরো উল্লেখযোগ্য।

এদিকে ‘লিডার’ এর শুটিং নিয়ে নির্মাতা তপু খান জানিয়েছিলেন, ২৫ মে থেকে শুটিং শুরু হবে। করোনার সেকেন্ড ওয়েবে ও লকডাউন না থাকলে আরও আগেই শুটিং শুরু হতো। এতোদিনে আমাদের কাজ শেষ হয়ে যেত। আমার পুরো টিম শুটিংয়ের জন্য প্রস্তুত। টানা শুটিংয়ে কাজ শেষ হবে। বাকিটা পরিস্থিতির উপর নির্ভর করছে।

‘লিডার আমি বাংলাদেশ’ সিনেমার জন্য পূর্ণ প্রস্তুতি নিয়েছেন শাকিব খান। তিনি বলেন, প্যান্ডামিক আমাদের ইন্ডাস্ট্রিকে কফিনে পেরেক ঠুকে দিয়েছে। মানুষকে হলমুখি করতে ভালো আয়োজনের ও গল্পের সিনেমা দরকার। লিডার (আমি বাংলাদেশ) ঠিক তেমনই সিনেমা।

যেভাবে পরিকল্পনা করা, সেই অনুযায়ী কাজ শেষ করে ‘লিডার’ দর্শকদের কাছে পৌঁছে দিতে পারলে ইন্ডাস্ট্রির জন্য সিনেমাটির টার্নিং হতে পারে বলে মনে করেন শাকিব খান।

‘লিডার আমি বাংলাদেশ’ সিনেমাটি প্রযোজনা করছে বেঙ্গল মাল্টিমিডিয়া (আরটিভি)। সিনেমাটিতে শাকিবের নায়িকা থাকছেন শবনম বুবলী। চিত্রনাট্য করেছেন দেলোয়ার হোসেন দিল।