চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

পগবা যাবেন জুভেন্টাসে, রোনালদো আসবেন ম্যানইউতে!

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে দিন শেষ হয়ে আসছে পল পগবার, নিজের মক্কেলকে নিয়ে কিছুদিন আগেই এমন মন্তব্য করেছেন সুপার এজেন্টখ্যাত মিনো রাউয়োলা। অন্যদিকে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর পেছনে বছরে ৩০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করতে করতে দম বের হয়ে আসার দশা জুভেন্টাসের, পর্তুগিজ মহাতারকাকে বিক্রি করার জন্য ক্লাব খুঁজে বেড়াচ্ছে ইতালিয়ান জায়ান্টরা।

দুই ক্লাবের ঝামেলা দুরকম হলেও দিনশেষে মিলটা এক! দুই ক্লাবই চাইছে নিজ নিজ দামি খেলোয়াড়কে ছেড়ে দিতে। এই মিলের কারণেই ম্যানইউ-জুভেন্টাস এক সঙ্গে আলোচনার টেবিলে বসতে পারে বলে জানিয়েছেন ব্রিটিশ ফুটবল লেখক মিগেল ডেলানি। দুই দলের আলোচনা হতে পারে রোনালদো-পগবার অদলবদল নিয়ে।

বিজ্ঞাপন

ফুটবল র‍্যাম্বল নামের এক অনুষ্ঠানে রোনালদো-পগবার অদলবদল নিয়ে কথা বলেছেন মিগেল ডেলানি, ‘আমি ইদানীং কিছু মানুষের সঙ্গে কথা বলছি, কারণ ব্যাপারটা পগবাকে নিয়ে যেটা আবার রোনালদোর সঙ্গে জড়িত। কিছুদিক থেকে জুভেন্টাস আবার এই বিষয়ে বেশ আগ্রহী। বিষয়টা কিন্তু একেবারেই অসম্ভব কিছু না।’

নতুন কোচ আন্দ্রে পিরলোর অধীনে তরুণদের জায়গা করে দিয়ে নতুন করে দল সাজাতে চাইছে জুভেন্টাস, পাশাপাশি দলের খরচও কমিয়ে আনার উদ্দেশ্য তাদের।

বিজ্ঞাপন

নতুন দল সাজানোর পেছনে বড় বাধা হয়ে আছে রোনালদোর ৩০ মিলিয়ন ইউরো বেতন। যে কারণে ৩৫ বছর বয়সী তারকাকে বিক্রি করতে আগ্রহী তুরিনের ক্লাবটি।

‘মউরিসও সারির সময়েও দল সাজাতে চেয়েছে জুভেন্টাস, এখন পিরলোর সময়ে চাইছে। তবে রোনালদো থাকায় কাজটা একেবারে অসম্ভব, কারণ সে যেভাবে খেলে সেটা জুভেন্টাসের ভবিষ্যতের সঙ্গে মানায় না।’

সেজন্যই পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী ফরোয়ার্ডকে বিক্রি করতে আগ্রহী। সাবেক ক্লাব ম্যানইউতে ফেরার ব্যাপারে পর্তুগিজ মহাতারকার আগ্রহ বেশ পুরনো। সেই ক্লাবের খেলোয়াড় পগবা আবার ওল্ড ট্রাফোর্ড ছাড়তে অস্থির হয়ে আছেন, সুযোগটা নিতে চাইছে জুভেন্টাস। ২০১৫ সালে তুরিন ছেড়ে ম্যানইউতে পাড়ি জমানো সাবেক মিডফিল্ডারকে আবারও ফেরত আনতে চাইছে ক্লাবটি।

রোনালদোর সঙ্গে সম্ভব না হলে বিকল্প হিসেবে পাওলো দিবালাকে প্রস্তুত রাখছে জুভেন্টাস। রোনালদোর চেয়ে আট বছরের ছোট আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড ম্যানইউর জন্য দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগ হতে পারে বিবেচনায় রেখেই প্রস্তাব দিতে চলেছে সিরি আ চ্যাম্পিয়নরা।