চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘নো ল্যান্ডস ম্যান’ এ যুক্ত হলেন এ আর রহমান, উচ্ছ্বসিত ফারুকী

সংগীত পরিচালনার প্রস্তাব দেয়া হয়েছিলো, কিন্তু ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’ এর রাফকাট দেখে সহপ্রযোজক হওয়ার ইচ্ছা পোষণ করেন এ আর রহমান

চলতি বছরের শুরুতেই শুটিং সম্পন্ন হয়েছে দেশের মেধাবী নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত আন্তর্জাতিক ছবি ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’। শুরু থেকেই একের পর এক চমক দিয়েছেন নির্মাতা। এবার দিলেন সবচেয়ে বড় চমক!

‘নো ল্যান্ডস ম্যান’ এ এবার যুক্ত হলেন অস্কারজয়ী ভারতীয় সংগীত পরিচালক এ আর রহমান। শুধু সংগীত পরিচালক হিসেবে নয়, ফারুকীর এই ছবির সহপ্রযোজনাতেও যুক্ত হলেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

বুধবার আমেরিকান ম্যাগাজিন ভ্যারাইটিতে প্রকাশিত রিপোর্টে এমন তথ্যই জানানো হয়।

বিজ্ঞাপন

ছবিতে এ আর রহমানকে যুক্ত করার বিষয়ে চ্যানেল আই অনলাইনকে নির্মাতা ফারুকী জানিয়েছেন,  ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’ এর সংগীত পরিচালনার জন্য যে ধরনের গ্লোবাল স্ট্যান্ডার্ড এর কাজ দরকার, এজন্য আমার এ আর রহমানকেই একমাত্র মানুষ বলে মনে হয়েছে। শুটিং শেষ হলে তাই ছবির রাফকাট তাকে দেখাই। এরপর আমাদের মধ্যে ছবিটি নিয়ে প্রচুর আইডিয়া শেয়ার হয়, তিনি ছবিটি দারুণ পছন্দ করেন। তার মতো একজন মানুষকে সংগীত পরিচালক এবং একই সঙ্গে কো-প্রোডিউসার হিসেবে পাওয়া খুবই ভাগ্যের ব্যাপার।

‘নো ল্যান্ডস ম্যান’ এর শুটিং সম্পন্ন হয়েছে চলতি মাসের শুরুতেই। তবে লকডাউনের জন্য আটকে আছে পোস্ট-প্রোডাকশনের কাজ। এ বিষয়ে ফারুকী বলেন, ছবিটির ফাইনাল এডিটিং নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। কিন্তু এরমধ্যে লকডাউনের কারণে আমাদের কাজ আটকে আছে।

বাংলাদেশ ছাড়াও ভারত ও আমেরিকায় হচ্ছে ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’ এর কাজ। মিউজিক রেকর্ডিং হচ্ছে ভারতে।

দেশের সিনেমায় নতুন ধারা প্রবর্তনকারী পরিচালক মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর আন্তর্জাতিক সিনেমা ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’-এ অভিনয় করেছেন বলিউডের মেধাবী অভিনেতা নওয়াজ উদ্দিন সিদ্দিকী, অস্ট্রেলিয়ান তারকা মেগান মিচেল এবং বাংলাদেশি তারকা অভিনেতা তাহসান খানসহ দেশ বিদেশের বহু তারকা।

‘নো ল্যান্ডস ম্যান’-এর চিত্রনাট্য ইতোমধ্যে একাধিক ফেস্টিভ্যালে ফান্ড জিতে নিয়েছে। এটি ২০১৪ সালে বুসান ফিল্ম ফেস্টিভালে এশিয়ান প্রজেক্ট মার্কেটে নির্বাচিত হয়। একই বছর নভেম্বরে ভারতের এনএফডিসি আয়োজিত ফিল্ম বাজারে শ্রেষ্ঠ প্রজেক্টের পুরস্কার লাভ করে এবং ডিসেম্বরে মোশন পিকচার্স অ্যাসোসিয়েশন অফ আমেরিকা এবং এশিয়া প্যাসিফিক স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ড-এর যৌথ উদ্যোগে দেয়া অ্যাপসা ফিল্ম ফান্ড লাভ করে।

এ আর রহমান ছাড়াও ছবিটি প্রযোজনায় যুক্ত আছেন অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন, বাংলাদেশের স্কয়ার গ্রুপের অঞ্জন চৌধুরী, আমেরিকান প্রযোজক শ্রীহরি শাথে, নুসরাত ইমরোজ তিশা ও মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। চলচ্চিত্রটিতে সহ-প্রযোজনায় রয়েছে বঙ্গ।

এদিকে ছবির কাজ সম্পন্ন করেও দীর্ঘদিন ধরে আটকে আছে ফারুকীর আরেক ছবি ‘শনিবার বিকেল’ মুক্তির অনুমতি। সেন্সর বোর্ডও এই ছবিটির ছাড়পত্র নিয়ে নির্বিকার। সম্প্রতি চ্যানেল আই অনলাইনকে সেন্সর বোর্ডের গুরুত্বপূর্ণ একজন সদস্য জানিয়েছেন, ‘বাংলাদেশে এই ছবির ভবিষ্যত নিয়ে তারা অবগত নন’!

এই ছবি নিয়ে বিকল্প কিছু ভাবছেন কিনা জানতে চাইলে ফারুকী বলেন, আমার ইমোশন পাব্লিককে দেখাতে পছন্দ করি না, আমার দুঃখ বেদনা আমার কাছে থাকবে। এবং এটাইতো হওয়া উচিত। কিন্তু এই ছবি নিয়ে কেউ কিছু জিজ্ঞেস করলে আমি আমার ইমোশন নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারি না। তাই এই ছবি নিয়ে কিছু বলতেই চাই না।