চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ধোনিকে সাবেকের প্রশ্ন, ‘বুড়োদের মাঝে কী খুঁজে পাও?’

মরুর বুকে আইপিএল শুরু হতেই চেন্নাই সুপার কিংসকে নিয়ে চলছে সমালোচনা। প্রথম ম্যাচ থেকেই দলটির খেলোয়াড়দের ‘বুড়ো বাবা’ বলে ঠাট্টা করছেন সমর্থকরা। পরে সময় যত গড়িয়েছে সমালোচনার জায়গা আরও শক্ত হয়েছে, দল নির্বাচন নিয়ে ভক্ত থেকে সাবেক ক্রিকেটারদের চোখ রাঙানি সইতে হচ্ছে অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনিকে। ভারতের সাবেক ক্রিকেটার কৃশ শ্রীকান্তই যেমন কোনো রাখঢাক রাখলেন না, সোমবার রাজস্থান রয়্যালসের কাছে হারের পর ধুয়ে দিয়েছেন ধোনিকে।

সোমবারের হারের পর পয়েন্ট টেবিলে তলানিতে নেমে গেছে ধোনির চেন্নাই। আইপিএলে প্রথমবারের মতো প্লে-অফের আগেই বাদ যাওয়ার শঙ্কায় তারা। ম্যাচের পর দলের তরুণদের পারফরম্যান্স নিয়ে হতাশা প্রকাশ করতে দেখা গেছে ধোনিকেও। স্টার স্পোর্টসকে বলেছেন, তরুণদের কাছ থেকে যা আশা করছিলেন ঠিক মনমতো পাচ্ছেন না।

বিজ্ঞাপন

ধোনির এই কথা শোনার পর ক্ষোভ সামলাতে পারেননি প্রথম আসরে চেন্নাইয়ের প্রথম ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর শ্রীকান্ত। ধোনির দাবিকে জঘন্য বলে উড়িয়ে দিয়েছেন সাবেক অধিনায়ক-নির্বাচক। পীযূষ চাওলা ও কেদার যাদবের মতো বয়স্কদের দলে অন্তর্ভুক্তি নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন। নারায়ণ জগদেশানের মতো তরুণ ক্রিকেটারকে দলে সুযোগ না দেয়ায় অধিনায়ককে একহাত নিয়েছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

‘ধোনি কী বলতে চায়? সে বলছে জগদেশান ঠিকমতো জ্বলতে পারছে না। তো, যাদব নিশ্চয়ই ভালো খেলছে? এটা জঘন্য একটা বিষয়। আজকে এমন অজুহাত শুনতে রাজি নই। চেন্নাইয়ের আসর শেষ হয়ে গেছে, এটাই আসল কথা।’

‘ধোনি বলছে চাপ কমলে সে তরুণদের সুযোগ দেবে। দলের প্রক্রিয়ার এসব ছাইপাঁশ আমার মাথায় আসে না। জগদেশানের মাঝে সে স্ফুলিঙ্গ খুঁজে পাচ্ছে না, কেদার যাদব আর চাওলার মাঝে তাহলে কী এমন দেখতে পাচ্ছে?’

‘কর্ণ শর্মা অন্তত উইকেট পায়। চাওলা দলের প্রয়োজনের সময়ে বল করে দলকে হারিয়ে দেয়। ধোনি হতে পারে বিশাল কেউ, কিংবদন্তি, তাতে কোনো সন্দেহ নেই। তবে তার কথার সঙ্গে আমি একমত নই।’