চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দ্বিতীয়দফায় খুলবে জট?

বার্সা-মেসি পরিস্থিতি জট পাকিয়ে আছে। কোনো পক্ষেরই ছাড় দেয়ার আভাস মিলছিল না। অনড়ভাব কাটে মেসির বাবা আর বার্সা সভাপতি জোসেপ মারিয়া বার্তেমেউয়ের প্রথমদফা আলোচনার পর। মেলে ঘটনার নাটকীয় মোড়ের ইঙ্গিত। সেই সূত্রেই প্রশ্ন, দুপক্ষের দ্বিতীয়দফার আলোচনার পর মিটে যাচ্ছে ঝামেলা? শুক্রবার আবারও বসছেন তারা।

বেশ লম্বা একটা সময় চলে গেছে মেসির দলবদল পরিস্থিতির ঘোলাটেভাব। আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড বার্সেলোনায় থাকছেন নাকি চলে যাচ্ছেন ন্যু ক্যাম্প ছেড়ে, পরিষ্কার নয় এখনও। জয়টা বার্সার হওয়ার পালে হাওয়া লাগতে শুরু করেছে বৃহস্পতিবার থেকে। দৃশ্যপট পাল্টে যাওয়ার আভাস।

বিজ্ঞাপন

মেসির বাবা ও এজেন্ট হোর্হে মেসি ইঙ্গিত দিয়েছেন, আরেকটা মৌসুম কাতালোনিয়াতে কাটিয়ে দিতে পারেন ছয়বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী মহাতারকা। শুক্রবার যে দ্বিতীয়দফায় আলোচনায় বসার কথা দুপক্ষের, তাতেই মিলে যেতে পারে সমাধান পথও, এ কথাটা অবশ্য স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমের।

বিজ্ঞাপন

বার্সেলোনায় নিজ ফ্ল্যাটে ক্লাব সভাপতি জোসেপ মারিয়া বার্তেমেউয়ের সঙ্গে প্রথমদফার আলোচনায় বসেছিলেন হোর্হে মেসি। তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন আরেক ছেলে, তথা মেসির ভাই এবং উপদেষ্টা রদ্রিগো মেসি। বার্তেমেউয়ের সঙ্গে ছিলেন বোর্ডের একজন পরিচালক হাভিয়ের বোর্দাস।

আলোচনায় বার্তেমেউ একটা কথাই বারবার পুনরাবৃত্তি করেছেন, কোনো অবস্থাতেই তারা মেসিকে যেতে দেবেন না। বরং মেসিকে ঘিরেই ভবিষ্যতের নতুন বার্সা গড়ার পরিকল্পনা সাজানো হয়েছে এবং তিনিই হবেন এর মূল স্তম্ভ।

বিজ্ঞাপন

আর মেসি যদি যেতেই চান, তাতে যেকোনো ক্লাবকে বিনিময়ে ৭০০ মিলিয়ন রিলিজ ক্লজ পরিশোধ করতেই হবে। কোনভাবেই তাকে বিনা ট্রান্সফার ফিতে যেতে দেয়া হবে না।

হোর্হে মেসিও খুব সহজ সরল ভাষায় বুঝিয়ে দিয়েছেন, তার ছেলে আর কিছুতেই ন্যু ক্যাম্পে খেলতে নামছেন না। রোজারিও থেকে এল প্রাত বিমানবন্দরে নেমেও তিনি সাংবাদিকদের বলেছিলেন, তার ছেলের বার্সায় থাকা খুব কঠিন।

পরে মিডিয়াসেটকে আবার অন্য কথা বলেছেন হোর্হে। আলোচনা শেষে মেসির বাবার বক্তব্য, সবকিছু ঠিক আছে। আলোচনা সফল! তাহলে ২০২১ সাল পর্যন্ত মেসি থাকছেন বার্সাতে? এমন প্রশ্নের উত্তরে হোর্হের জবাব ছিল একশব্দে, ‘হ্যাঁ’!

বার্সার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে এমুহূর্তে দলবদল করা উচিৎ হবে না তাদের অধিনায়কের। বরং তাদেরকে একটা মৌসুম সময় দেয়া হোক, মেসিকে ঘিরেই তাদের ভবিষ্যৎ বার্সা গড়ে তোলা হবে। যদি সামনের মৌসুমেও দল মনের মতো না হয়, তখন না হয় বিনা ট্রান্সফার ফিতেই চলে যাবেন আর্জেন্টাইন মহাতারকা।

এরপর থেকেই মেসির ম্যানসিটি যাত্রার সম্ভাবনার ইতি দেখতে শুরু করেছেন বিশ্লেষকরা। এখন জটটা পুরোপুরি খুলে যাওয়ার অপেক্ষা। কে জানে মেসির মনোকাশে হয়ত শুক্রবারই উদয় দেবে সেই অপেক্ষার প্রহর শেষের সূর্য!