চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দিনাজপুরে সংক্রমণ এবং মৃত্যুর হার বাড়ছে

করোনাভাইরাস

দিনাজপুরে আশংকাজনক হারে করোনা সংক্রমণ এবং মৃত্যুর হার বাড়ছে। এ পর্যন্ত করোনায় জেলায় মৃত্যু হয়েছে ১৩৭ জনের। গত এক সপ্তাহে জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৯ জনের। এছাড়াও করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয়েছে, আরও ৩ জনের।

২৪ ঘণ্টায় ৩৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত হয়েছে, ৬১০১ জন। সুস্থ্য হয়েছে, ৫৫৮৩ জন। বর্তমানে ৩৮১ জন করোনা রোগী রয়েছে জেলায়।

২৪ ঘন্টায় ১১৩ জন কোয়ারেন্টাইনে এবং ৩৪৬ জন আইসোলেশনে রয়েছে। হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে, ৬১ জন। এরমধ্যে কোভিড-১৯ পজেটিভ ৩৫ জন এবং ২৬ জন উপসর্গ সন্দেহভাজন রয়েছে। আক্রান্তের হার ২১ দশমিক ১ শতাংশ।

দিনাজপুর সিভিল সার্জন আব্দুল কুদ্দুস জানান, গত দুই সপ্তাহ ধরে করোনা সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী। বিশেষ করে দিনাজপুর সদর উপজেলায় সংক্রমণ অস্বাভাবিকহারে বৃদ্ধি পেয়েছে। ইতোমধ্যে জেলা করোনা কমিটির বৈঠক হয়েছে। কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

পরের সভায় দুই-একটি উপজেলাকে লকডাউনের আওতায় আনার সিদ্ধান্ত গ্রহণের ঘোষণাপত্র জারি করা হতে পারে বলে জানান তিনি।

সিভিল সার্জন জানান, চলতি বছরের ৬ জানুয়ারি দিনাজপুর জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মত্যুর সংখ্যা ছিল ১০০ জনে। এরপর প্রায় দেড় মাস ধরে জেলায় করোনায় কোন মৃত্যুর ঘটনা না ঘটলেও গত ২০ মার্চ জেলায় করোনায় একজনের মৃত্যু হয়।

এরপর জুন মাসের প্রথম থেকে জেলায় আশঙ্কাজনকহারে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে যায়। এক সপ্তাহে করোনা আক্রান্ত হয়ে জেলায় মৃত্যু হয়েছে ৯ জনের। এছাড়াও করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হয়েছে, আরও ৩ জনের।

সিভিল সার্জন আব্দুল কুদ্দুস আরো জানান, গত দুই সপ্তাহ ধরে করোনা সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী। বিশেষ করে দিনাজপুর সদর উপজেলায় সংক্রমণ অস্বাভাবিকহারে বৃদ্ধি পেয়েছে।

এদিকে দেশের অন্যতম বৃহত্তর স্থলবন্দর দিনাজপুরের হিলি দিয়ে ভারতে আটকে পড়া বাংলাদেশীরা দেশে ফিরছেন। এনিয়ে আরও শংকায় দিনাজপুরের মানুষ।

বিজ্ঞাপন