চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

তারা হারানোর বছর: চেনামুখদের হারালো হলিউড

বছর শেষে...

২০২০-এ হলিউড হারিয়েছে অনেক কিংবদন্তী ও চেনামুখকে। যারা এ বছরটিতে চিরদিনের জন্য চলে গেছেন তাদের তালিকা অনেক দীর্ঘ। চিরপ্রস্থানে যাওয়া এই তারকারা নিজ নিজ ক্ষেত্রে চিরস্মরণীয় অবদান রেখে গেছেন:

কার্ক ডগলাস: হলিউডের কিংবদন্তি অভিনেতা কার্ক ডগলাস গত ৬ ফেব্রুয়ারি ১০৩ বছর বয়সে মারা যান। হলিউডে টানা ৫০ বছর অভিনয় করেন তিনি। ক্লাসিক চলচ্চিত্র ‘সাইক্লোপস’-এর মধ্য দিয়ে তিনি হয়ে উঠেন সিনেমাপ্রেমীদের প্রিয় অভিনেতা। ৫০-এর দশকে তার বেশি কয়েকটি সিনেমা সাড়া ফেলে। সেগুলো হলো- এইস ইন দ্য হোল (১৯৫১), দ্য ব্যাড অ্যান্ড দ্য বিউটিফুল (১৯৫২), অ্যাক্ট অব লাভ (১৯৫৩), টু থাউজেন্ড লিগ আন্ডার দ্য সি (১৯৫৪), চ্যাম্পিয়ন (১৯৪৯), লাস্ট ফর লাইফ (১৯৫৬) ও স্পার্টাকাস (১৯৬০)।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

চ্যাডউইক বোসম্যান: ‘ব্ল্যাক প্যানথার’-খ্যাত জনপ্রিয় মার্কিন তারকা চ্যাডউইক বোসম্যান মৃত্যুবরণ করেছেন ২৯ আগস্ট। ‘ব্ল্যাক প্যানথার’ ছাড়াও অনেক জনপ্রিয় সিনেমায় অভিনয় করেছেন বোসম্যান। এসবের মধ্যে রয়েছে ‘দা ফাইভ ব্লাডস’, ‘অ্যাভেঞ্জারস : ইনফিনিটি ওয়ার’, ‘অ্যাভেঞ্জারস : এন্ডগেম’, ‘ক্যাপ্টেন আমেরিকা : সিভিল ওয়ার’, ‘ম্যাসেজ ফ্রম দ্য কিং’, ‘গডস অব ইজিপ্ট’, ‘দ্য কিং হোল’, ‘মার্শাল’ ইত্যাদি।

কার্ল রেইনার: হলিউডের কিংবদন্তি অভিনেতা কার্ল রেইনার চলে গেছেন ১ জুলাই। যুক্তরাষ্ট্রে বিনোদন জগতে অত্যন্ত পরিচিত ও জনপ্রিয় মুখ ছিলেন রেইনার। সাম্প্রতিক বছরে তিনি জর্জ ক্লুনি অভিনীত ‘ওসিনস ইলেভেন’ সিনেমা এবং ‘ব্রডওয়ে: বিয়ন্ড দ্য গোল্ডেন এজ’ ও ‘ইফ ইউ’র নট ইন দ্য ওবিট, ইট ব্রেকফাস্ট’ ডকুমেন্টারিতে অভিনয় করেছেন।

কেলি প্রেসটন: হলিউড অভিনেত্রী কেলি প্রেসটন (৫৭) মারা গেছেন ১২ জুলাই। স্তন ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন তিনি। কেলি প্রেসটন হলিউডে বেশকিছু সুপারহিট সিনেমা উপহার দিয়েছেন। তার অভিনীত অন্যতম সিনেমা ১৯৯৬ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘জেরি মাগুইরে’। এতে তিনি টম ক্রুজের সঙ্গে পর্দা ভাগ করে নেন। এছাড়া ‘স্পেস ক্যাম্প’, ‘টুইনস’, ‘ফ্রম ডাস্ক টিল ডাউন’ ও ‘দ্য ক্যাট ইন দ্য হেট’ সিনেমায় তার উপস্থিতি আজও দর্শকদের মনে রয়েছে।

নায়া রিভেরা: মার্কিন অভিনয়শিল্পী, মডেল ও সংগীতশিল্পী নায়া রিভেরার মৃত্যু হয়েছে ৮ ডিসেম্বর পানিতে ডুবে। এটি নিছক দুর্ঘটনা বলে দাবি ময়নাতদন্তে। ৩৩ বছর বয়সী নায়া জনপ্রিয় কমেডি টিভি সিরিজ ‘গ্লি’ তে সান্তানা লোপেজের চরিত্র করে জনপ্রিয় হন।

রিভেরা লুকার: ব্রডওয়ে তারকা রিভেরা লুকার মারা গেছেন ২৩ ডিসেম্বর। তার বয়স হয়েছিল ৫৯। তিনি মৃত্যুর দশ মাস আগে জানিয়েছিলেন এএলএস রোগে ভুগছেন।

জেরেমি বুলোচ: ‘স্টার ওয়ার্স’ তারকা জেরেমি বুলোচ, যিনি বোবা ফেট অভিনয় করেছিলেন, ১৭ ডিসেম্বর তিনি ৭৫ বছর বয়সে মারা যান। দীর্ঘদিন ধরে তিনি পারকিনসন রোগে ভুগছিলেন।

নাটালি ডেসেল রিড: ৭ ডিসেম্বর অভিনেত্রী নাটালি ডেসেল রিড ৫৩ বছর বয়সে মারা গেছেন। তিনি কোলন ক্যানসারে ভুগছিলেন।

ক্যারোস সাট্টোন: ‘স্টিল ম্যাগনোলিয়াস’ এবং ‘রে’ ছবির তারকা ক্যারোস সাট্টোন মারা গেছেন ১০ ডিসেম্বর। করোনাভাইরাসের সাথে ১ মাস লড়াই করে ৭৬ বছর বয়সে মৃত্যু হয় তার।

অ্যালেক্স ট্রেবেক: আমেরিকার জনপ্রিয় টেলিভিশন গেম শো ‘জিওপার্ডি’র উপস্থাপক অ্যালেক্স ট্রেবেক ৮ নভেম্বর মারা গেছেন। দীর্ঘদিন ধরে অগ্ন্যাশয়ের ক্যানসারে ভুগছিলেন তিনি। তার বয়স হয়েছিল ৮০ বছর।

এডি হ্যাসেল: ‘সারফেস’ এবং ‘ডেভিয়াস মেইডস’ তারকা এডি হ্যাসেল ১ নভেম্বর ৩০ বছর বয়সে মারা গেছেন। টেক্সাসে প্রেমিকার বাড়ির সামনে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় অভিনেতার দেহ উদ্ধার করা হয়।

শন কনারি: ৩১ অক্টোবর বিশ্বকে কাঁদিয়ে চলে গেছেন ‘জেমস বন্ড’ খ্যাত শন কনারি। ঘুমের মধ্যেই মৃত্যু হয়েছিল তার।

বিজ্ঞাপন

জেমস রেডফোর্ড: নির্মাতা জেমস রেডফোর্ড মারা গেছেন ১৬ অক্টোবর। দীর্ঘদিন ধরে ক্যানসারে ভুগে ৫৮ বছর বয়সে মারা যান তিনি।

কনচাটা ফেরেল: ‘দ্য টু অ্যান্ড অ্যা হাফ মেন’ অভিনেত্রী মারা গেছেন ১২ অক্টোবর। তার বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর।

মারগারেট নোলান: অভিনেত্রী ও মডেল মারগারেট নোলান ৫ অক্টোবর ৭৫ বছর বয়সে মারা গেছেন।

এডি ভ্যান হ্যালেন: ৬ অক্টোবর বিশ্বখ্যাত রক গিটারিস্ট এডি ভ্যান হ্যালেন মারা গেছেন। দীর্ঘদিন ক্যানসারের সঙ্গে লড়াই করে ৬৫ বছর বয়সে তার মৃত্যু হয়।

ক্লার্ক মিডলটন: ‘দ্য ব্ল্যাকলিস্ট’ এবং ‘টুইন পিক্স’ তারকা ক্লার্ক মিডলটন মারা গেছেন ৪ অক্টোবর। ওয়েস্ট নাইল ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৬৩ বছর বয়সে তার মৃত্যু হয়।

মাইকেল লনসডেল: ‘১৯৭৯’ সালের ‘মুনরেকার’ ছবিতে জেমস বন্ড ভিলেন ‘হুগো ড্র্যাক্স’ চরিত্রে অভিনয় করে জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন মাইকেল লনসডেল। এই অভিনেতা ২১ সেপ্টেম্বর ৮৭ বছর বয়সে মারা গেছেন।

বেন ক্রস: ‘দ্য চ্যারিয়টস অব ফায়ার’ অভিনেতা বেন ক্রস মারা গেছেন ১৮ আগস্ট। তার বয়স হয়েছিল ৭২ বছর।

অ্যালান পার্কার: ব্রিটিশ নির্মাতা অ্যালান পার্কার মারা গেছেন ৩১ জুলাই। দীর্ঘদিন ধরে অজানা রোগে ভুগে ৭৬ বছর বয়সে তার মৃত্যু হয়।

অলিভিয়া ডি হ্যাভিল্যান্ড: হলিউডের স্বর্ণযুগের তারকা অলিভিয়া ডি হ্যাভিল্যান্ড। ‘গন উইথ দ্য উইন্ড’ ছবির অভিনেত্রী অলিভিয়া ডি হ্যাভিল্যান্ড ২৬ জুলাই মারা গেছেন। তার বয়স হয়েছিল ১০৪ বছর।

রোয়ানা ব্ল্যাক: ‘দ্য ব্রডওয়ে’ এবং ‘রাইজিং মিরান্ডা’ তারকা ১৪ জুলাই মারা গেছে। লিউকেমিয়ায় ভুগে ৪৭ বছর বয়সে মৃত্যু হয়েছে তার।

কেলি প্রিস্টন: দুই বছর স্তনের ক্যানসারে ভুগে ১২ জুলাই মারা গেছেন ‘দ্য জেরি ম্যাগুইর’ তারকা কেলি প্রিস্টন। তার বয়স হয়েছিল ৫৭ বছর।

নিক করডেরো: করোনাভাইরাসের লক্ষণ নিয়ে ৫ জুলাই মারা গেছেন ‘দ্য ব্রডওয়ে’ তারকা নিক করডেরো। তার বয়স হয়েছিল ৪১ বছর।

জোল শুমাখার: ক্যানসারের সাথে দীর্ঘ লড়াই করে ২২ জুন হার মানলেন হলিউড নির্মাতা জোল শুমাখার। ৮০ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেছেন এই গুণী নির্মাতা। কস্টিউম ডিজাইনার থেকে নির্মাতা বনেছিলেন জোল শুমাখার। নির্মাণ করেছিলেন ‘ব্যাটম্যান ফরেভার’, ‘ব্যাটম্যান অ্যান্ড রবিন’, ‘দ্য লস্ট বয়েজ’, ‘সেন্ট এলমোজ ফায়ার’, ‘ফলিং ডাউন’-এর মতো জনপ্রিয় ছবি।

ইয়ান হোম: ‘দ্য লর্ড অব দ্য রিংস’ অভিনেতা ইয়ান হোম মারা গেছেন ১৯ জুন। পারকিনসন রোগে ভুগে ৮৮ বছর বয়সে তার মৃত্যু হয়।