চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

তরুণদের জেদই বিশ্বজয়ের মন্ত্র

বড় মঞ্চে ভারতের বিপক্ষে জয়ের খুব কাছে গিয়ে হার ‘নিয়তি’ হয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশের। তিরে এসে তরী ডোবানোর অনেক গল্পই অতীতে লেখা হয়েছে টাইগার ক্রিকেটে। মাশরাফী-মুশফিক হয়ে সেই জুজু ভর করেছিল যুবাদেরও। অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপের ফাইনালে মাত্র ১০৭ রান তাড়া করে জিততে পারেনি তারা। সেই আক্ষেপ আকবর-ইমন-রাকিবুলরা মিটিয়েছেন আরও বড় মঞ্চে, বিশ্বকাপ ফাইনাল জিতে।

পরাক্রমশালী প্রতিপক্ষকে ৩ উইকেটে হারিয়ে জুনিয়র টাইগাররা রোববার পচেফস্ট্রুমে লিখেছে অনন্য ইতিহাস। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিবি) এনে দিয়েছে সবচেয়ে বড় গৌরব। বিসিবি পরিচালক ও মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস মনে করেন, অতীতে হারের গ্লানি জেদ ধরিয়ে দিয়েছিল তরুণদের। সেটিই জ্বালানি হিসেবে কাজ করেছে বিশ্বকাপ জয়ে।

বিজ্ঞাপন

‘অতীতে আমরা অনেক কাছাকাছি গিয়েছি, কিন্তু পারিনি। এই ভারতের সঙ্গেই কাছাকাছি গিয়েছিলাম। ২০১৬তে আমাদের একটা সুযোগ ছিল, সেখানে আমরা পারিনি। এখন ছেলেরা বিশ্বকাপ ট্রফিটা নিয়ে আসছে, অনুভূতি অসাধারণ। ভাষায় প্রকাশ করে বলা যাবে না।’

‘একটা জিনিস ভালো লেগেছে, তরুণ ক্রিকেটারদের চেষ্টাটা। যেভাবে দাপটে জিতেছে সত্যিই দুর্দান্ত। তাদের শারীরিক ভাষাই বলছিল তাদের মধ্যে একটা জেদ কাজ করছে। এই জেদটা একটা ফ্যাক্টর ছিল। স্কিল থাকতে পারে, টেকনিক থাকতে পারে। কিন্তু খেলোয়াড়দের মধ্যে জেদ, ফাইটার মনোভাব। খেলোয়াড়দের মধ্যে যে ফাইটিং স্পিরিট দেখেছি তা অসাধারণ।’

বিজ্ঞাপন