চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ঢাকা চলচ্চিত্র উৎসবে বাংলাদেশি ৮ সিনেমা

‘বাংলাদেশ প্যানারোমা’ বিভাগে এবার থাকছে মোট ৮টি পূর্ণদৈর্ঘ্য সিনেমা

শনিবার (১৬ জানুয়ারি) আনুষ্ঠানিকভাবে পর্দা উঠছে ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের ১৯তম আসরের। বিশ্বের ৭৩টি দেশের ২২৫টি চলচ্চিত্র নিয়ে শুরু হতে যাওয়া এই উৎসবে দেখানো হবে বাংলাদেশের ৮টি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র।

রেইনবো চলচ্চিত্র সংসদের উদ্যোগে বরাবরের মতোই এবারের উৎসবেও এশিয়ান ফিল্ম প্রতিযোগিতা বিভাগ, রেট্রোস্পেকটিভ বিভাগ, বাংলাদেশ প্যানারোমা, সিনেমা অফ দ্য ওয়ার্ল্ড, চিল্ড্রেন ফিল্মস্, স্পিরিচুয়াল ফিল্মস, শর্ট অ্যান্ড ইন্ডিপেনডেন্ট ফিল্ম এবং উইমেন্স ফিল্ম মেকার বিভাগে চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। তবে উৎসবে এবারই প্রথম যুক্ত হচ্ছে ‘লিজেন্ডারি লিডারস হু চেঞ্জ দি ওয়ার্ল্ড’ এবং ‘ট্রিবিউট’ নামে আরো দু’টি নতুন বিভাগ।

বিজ্ঞাপন

৯ দিনব্যাপী এই উৎসবে করোনার কারণে বিদেশি জুরি, নির্মাতারা উপস্থিত না থাকলেও দেশি চলচ্চিত্র নির্মাতা, প্রযোজক ও কলাকুশলীরা উপস্থিত থাকবেন।

আর এই উৎসবেই ‘বাংলাদেশ প্যানারোমা’ বিভাগে দেখানো হবে দেশের মোট আটটি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। এরমধ্যে আছে রফিকুল আনোয়ার রাসেলের ‘অ্যা মেন্ডোলিন ইন এক্সাইল’, সাদাত হোসেনের ‘গহীনের গান’, ফাখরুল আরেফীনের ‘গণ্ডি’, পারভেজ আমিনের ‘জোয়ার’, মৃত্তিকা গুণের ‘কালো মেঘের ভেলা’, আফজাল হোসেনের ‘সুবর্ণ রেখা’, মাসুদ হাসান উজ্জ্বলের ‘ঊনপঞ্চাশ বাতাস’ এবং শেখ আল মামুনের ‘হোয়াই নট’।

উৎসব আয়োজকরা জানিয়েছেন, সিনেমাগুলো কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান মিলনায়তনে প্রতিদিন সন্ধ্যা ৭টায় দেখানো হবে।

শনিবার আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হতে যাওয়া ১৯তম ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী ছবি ‘স্প্রিং ব্লোসম’। বিকেল চারটায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে চলচ্চিত্রটি প্রদর্শীত হবে। চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন সুজান্না লিনডন। একজন টিনেজ তরুণীর সঙ্গে একজন প্রবীণের জাগতিক সম্পের্কের টানাপোড়েন নিয়ে নির্মিত হয়েছে চলচ্চিত্রটি। ২০২০ সালের কান চলচ্চিত্র উৎসবে প্রতিযোগিতা বিভাগে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ‘স্প্রিং ব্লোসম’।