চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

টিএসসির ১৬ নম্বর সিসি ক্যামেরার ফুটেজ প্রকাশের দাবি

পহেলা বৈশাখের বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে নারী লাঞ্ছনার ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার অভিযোগ এনে সপ্তাহব্যাপী নতুন আন্দোলনের কর্মসূচি দিয়েছে ছাত্র ইউনিয়ন। ওইদিন নারী লাঞ্ছনার কোনো ঘটনা ঘটেনি বলে দায়িত্বশীল বিভিন্ন মহলের বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে টিএসসিতে ১৬ নম্বর সিসি ক্যামেরার ফুটেজ প্রকাশের দাবি জানিয়েছেন ছাত্রনেতা লিটন নন্দী।

নারী লাঞ্ছনাকারীদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে সাত দিনের আল্টিমেটাম শেষ হয় মঙ্গলবার। চিহ্নিত দোষিদের কাউকেই এখনো গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলন করে আন্দোলনের নতুন কর্মসূচির ঘোষণা করে সমাজতান্ত্রিক মতধারার এ দলটি।

ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি হাসান তারেক এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন। আগামী ২৩ এপ্রিল সন্ধ্যা ৬ টায় রাজু ভাস্কর্য থেকে মশাল মিছিল, ২৪ এপ্রিল বিকেলে প্রতিবাদী সাংস্কৃতি সমাবেশ, ২৫ এপ্রিল টিএসসিতে যৌন নিপীড়ন বিরোধী আলোক প্রজ্জ্বলন । এছাড়াও ২৬ এপ্রিল সারাদেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সকাল ১১ টা থেকে এক ঘন্টার ক্লাস বর্জন ও ২৭ থেকে ৩০ এপ্রিল জেলাপর্যায়ে ছাত্র গণ সমাবেশের কর্মসূচি পালন করা হবে।

দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের পদত্যাগ এবং বরখাস্ত পুলিশ কর্মকর্তাকে পূর্নবহালের প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থীরা রাজু ভাস্কর্যের সামনে বিক্ষোভ করেছে।

বিকেলে নারী সাংবাদিক কেন্দ্রের উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন হয়। এতে পহেলা বৈশাখে নারী লাঞ্ছনার ঘটনা আদৌ ঘটেনি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ,পুলিশ প্রসাশন এবং স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানানো হয়।

মানব বন্ধনে লিটন নন্দী বলেন, রাজু ভাস্কর্যের দক্ষিণ পাশের যে সিসিটিভি ক্যামেরা যার নম্বর ১৬ তাতে ওই দিনের ধারণ করা ভিডিও ফুটেজটি প্রকাশ করতে হবে।

তিনি অভিযোগ করেন ১৬ নম্বর ক্যামেরার ফুটেজ প্রকাশ করলে আসল অপরাধীরা ধরা পরে যাবে। এই কারণেই ওই ফুটেজ প্রকাশ করা হচ্ছেনা।

ঘটনা ধামাচাপা দিতে মিথ্যাচার করে বিশ্ববিদ্যালয়ের মান ক্ষুন্ন না করে, ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘৃন্য ঘটনার পূর্নরাবৃত্তি ঠেকাতে দোষিদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তিরও দাবি জানানো হয়।