চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

চেন্নাই টেস্টে ভারতের ‘ভিলেন’ তবে বল!

‘এটাই গোল বলের খেলা। ক্রিকেটে অবিশ্বাস্য অনেককিছুই হয়ে যায়!’ চট্টগ্রাম টেস্টে হারের পর এমন মন্তব্য করে সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক। ক্রিকেট যে গোল বলের খেলা, সেই খেলায় ফলাফল যেকোনো সময় যেকারো পক্ষে হেলে যেতে পারে, সেটা ক্রিকেট ভক্তদের জানাই আছে। কিন্তু ম্যাচ হারলে বল হতে পারে ভিলেন, সেটা জানা গেল চেন্নাই টেস্টে ভারতের হারের পর!

ঘরের মাটিতে টেস্ট সিরিজে এসজি বল দিয়ে খেলে ভারত। চেন্নাই টেস্ট হারের কারণ হিসেবে আচমকাই উঠে এসেছে এই বলের গুণমান। এখন রাতারাতি খলনায়ক হয়ে গেছে ভারতেরই সংস্থার তৈরি বলটি। বিরাট কোহলি এবং রবিচন্দ্রন অশ্বিন প্রকাশ্যে সমালোচনা করেছেন ওই বলের।

বিজ্ঞাপন

যে সংস্থা এই বল তৈরি করে, তার প্রধান কর্মকর্তা পরস আনন্দ অবশ্য বলছেন, বলের খারাপ গুণমানের জন্য তারা নন, দায়ী চিপকের পিচ। পাশাপাশি জানিয়েছেন, আগামীদিনে বল নির্মাণের ক্ষেত্রে ক্রিকেটারদের কথা শোনা হবে।

এক ওয়েবসাইটে আনন্দ বলেছেন, “ম্যাচের পর অশ্বিন বলেছিল, ‘আমি কোনদিন বলের চামড়া এভাবে উঠে যেতে দেখিনি। মনে হয় এরজন্য পিচও দায়ী’। এই কথাটাই আমরা তুলে ধরতে চাইছি। আগে থেকে সমালোচনা বা ঢাকা-চাপা দেয়ার চেষ্টা না করে ক্রিকেটারদের সঙ্গে কথা বলাই এক্ষেত্রে সব থেকে ভালো। আগে আমাদের দেখতে হবে পিচ কীরকম ছিল। তারপর সেই অনুযায়ী বলের নির্মাণে কোনো বদল আনা যায় কিনা দেখতে হবে।”

চিপকের পিচ নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রশ্ন উঠে গেছে। আনন্দ তুলে ধরেছেন ইশান্ত শর্মার একটি মন্তব্য। বলেছেন, ‘আমি শুধু টিভিতেই পিচ দেখেছি। কাছে গিয়ে দেখার সুযোগ হয়নি। কিন্তু মনে করে দেখুন, ৩০০তম উইকেট পাওয়ার দিনে ইশান্ত শর্মাও বলেছিল যেন রাস্তায় বোলিং করছে। এতটাই শক্ত ছিল চিপকের পিচ।’

এরসঙ্গে আনন্দ জানিয়ে দিয়েছেন, ভারত-ইংল্যান্ড সিরিজে কোনো নতুন বল ব্যবহৃত হয়নি। তার দাবি, সব বলই খারাপ ছিল না। এমনকি, একটি বল ১০৪ ওভার ব্যবহার করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন