চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দেশে চীনের ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু

ভ্যাকসিন কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রাথমিকভাবে ১ হাজার মেডিক্যাল শিক্ষার্থীকে চীনের উপহার দেওয়া সিনফার্মার ভ্যাকসিন প্রয়োগ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। 

মঙ্গলবার ঢাকা মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীদের এই ভ্যাকসিন প্রয়োগের কার্যক্রম উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

প্রথম অবস্থায় মঙ্গলবার ঢাকা মেডিক্যালের ২৫৭ শিক্ষার্থীকে এবং মুগদা মেডিকেল কলেজ, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ এবং মিটফোর্ড মেডিকেল কলেজসহ চারটি মেডিকেল কলেজের মোট ৮৪০ জন শিক্ষার্থীকে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর উপস্থিতিতে তিন শিক্ষার্থী করোনার ভ্যাকসিন নেন। প্রথম ভ্যাকসিন গ্রহণকারী শিক্ষার্থীর নাম অনন্যা সালাম সমতা অপর দুই শিক্ষার্থী হলে নিয়ামুল এবং শাহীন।

বিজ্ঞাপন

এর মধ্যে দিয়ে চীনের সিনোফার্মার উপহার দেয়া পাঁচ লাখ ডোজ দিয়ে শুরু হচ্ছে ফ্রন্টলাইনার মেডিকেল শিক্ষার্থীদের টিকাদান কাজ। এর মাধ্যমে দেশে ৪০ বছরের নিজের বয়সীরা করোনার টিকার আওতায় আসবে।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য মন্ত্রী বলেন, সারাদেশের মেডিকেল কলেজের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী যাদের রোগীর পাশে যেতে হয়, এবং সময় রোগীদের চিকিৎসা দিতে হয় তাদের পর্যায়ক্রমে করোনার টিকার আওতায় আনা হবে। আজ টিকাদান কর্মসূচির সূচনা হলো।

গত বুধবার চীনের দেওয়া পাঁচ লাখ সিনোফার্মার টিকা দেশে এসে পৌঁছেছে। এর আগে গত ২৯ এপ্রিল চীনা কোম্পানির তৈরি এ করোনাভাইরাসের টিকা জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দেয় দেশের ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের কর্মকর্তারা জানান, প্রথমত এই টিকা পাবেন মেডিক্যাল শিক্ষার্থীরা। মেডিক্যাল কলেজ, নার্সিং ইনস্টিটিউট ও মেডিকেল টেকনোলজিস্ট শিক্ষার্থীরাও এই টিকা পাবেন। এছাড়া বাংলাদেশে বসবাসরত চীনা নাগরিক এবং বিভিন্ন বড় প্রকল্পে কর্মরত চীনা কর্মীদেরও অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এ টিকা দেওয়া হবে।