চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

গাইবান্ধায় ন্যায্য দামে বিক্রি হচ্ছেনা কৃষকের মরিচ

মৌসুমের শুরুতে মরিচের দাম কম থাকলেও রমজানে বেশ লাভবান হচ্ছে গাইবান্ধার চাষীরা। এক মাসের ব্যবধানে মরিচের কেজি ২ টাকা থেকে পৌঁছেছে ৭০ টাকায়। 
চলতি মৌসুমে মরিচের সবচেয়ে বেশি আবাদ হয়েছে পলাশবাড়ি, সাদুল্যাপুর ও গোবিন্দগঞ্জে। উৎপাদন ভালো হলেও শুরুতে বাজারমূল্য ছিলো কম। টানা বৃষ্টি ও রমজানে কাঁচা মরিচের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় একমাসের ব্যবধানে দাম বেড়েছে বহুগুণ। 

বিজ্ঞাপন

গাইবান্ধার কৃষকরা বলেন, যখন আমাদের প্রথম ফসলটা হয় তখন সেই সময় আমাদের বাজার ছিলো না।এখন বাজার হলেও আমাদের ফলন নেই।
স্থানীয় বাজারগুলোতে প্রতি মণ মরিচ বিক্রি হচ্ছে ২ হাজার ৮শ’ থেকে ৩ হাজার টাকায়। ব্যবসায়ীরা জানান, বাজারে সরবরাহ কমে যাওয়ায় বেড়েছে দাম।
তারা বলেন, রমজান বলে আমরা মোটামোটি দাম পাচ্ছি।
মরিচ ক্ষেতে রোগ-বালাই ও গাছে মড়ক রোধে কৃষককে পরামর্শ ও সহযোগিতা দিচ্ছে স্থানীয় কৃষি বিভাগ।
গোবিন্দগঞ্জ গাইবান্ধার উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা  সাহেরা বানু বলেন, কৃষকদের বিভিন্ন ধরণের কীটনাশক, সার দেয়া পরামর্শ আমরা করছি। সেই সঙ্গে দীর্ঘদিন গাছ টিকিয়ে রাখার পদ্ধতি নিয়েও আলোচনা করছি।এসব সমস্যা দূর হলে কৃষকরা লাভবান হবে বলে আমরা আশা করছি।

বিজ্ঞাপন