চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

গণমাধ্যমকর্মীদের জন্য বিজিএমইএ’র ২৫ হাজার মাস্ক

গণমাধ্যমকর্মীদের জন্য ২৫ হাজার মাস্ক উপহার দিয়েছে তৈরি পোশাক প্রস্তত ও রপ্তানিকারকদের সংগঠন বিজিএমইএ।

বুধবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সভাপতি মুরসালিন নোমানীর হাতে এই মাস্ক তুলে দেন বিজিএমইএর সভাপতি ফারুক হাসান।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে বিজিএমইএ।

এ সময় তিনি বলেন, সাংবাদিকরা হলেন সত্যিকারের নায়ক। তারা কোভিড-১৯ মহামারি চলাকালীন স্বাস্থ্য ঝুঁকি নিয়ে সাহসিকতার সাথে আন্তরিকতা দিয়ে পেশাগত দায়িত্ব পালন করছেন।

জনগণকে কোভিড ভাইরাসের প্রভাব অবহিতকরন ও এ সংক্রান্ত সব ভুল তথ্য দূর করার ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা পালন করছেন। তাই সাংবাদিকরা আমাদের কাছ থেকে অপরিসীম কৃতজ্ঞতা পাওয়ার দাবীদার।

বিজ্ঞাপন

বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, কোভিড-১৯ সংক্রমণের ঝুঁকি কমানো ও সংক্রমণের বিস্তার রোধের জন্য যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ, বিশেষ করে মাস্ক পরিধান ও গণ টিকাদানের কোন বিকল্প নেই।

ডিআরইউ সভাপতি মুরসালিন নোমানী গণমাধ্যমকর্মীদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তার বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে তাদেরকে মাস্ক প্রদানের জন্য বিজিএমইএকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিজিএমইএ মনেপ্রাণে বিশ্বাস করে, ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ডের বাইরেও সমাজের প্রতি বিজিএমইএর দায়িত্ব আছে এবং সামাজিক দায়বদ্ধতায় উদ্বুদ্ধ হয়ে বিজিএমইএ সমাজের কল্যাণে অনেক কর্মকাণ্ডের সাথে সক্রিয়ভাবে যুক্ত হয়েছে।

বাংলাদেশে কোভিড-১৯ মহামারিকালীন নজিরবিহীন সংকটে বিজিএমইএ সীমিত সম্পদ নিয়েই সম্মুখ সারির যোদ্ধা ও দরিদ্র জনগণের সহায়তায় এগিয়ে এসেছে।

বিজিএমইএ সম্মুখ সারির যোদ্ধা স্বাস্থ্যকর্মী, আইন প্রয়োগকারী সংস্থা, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, কাস্টমস, সমুদ্র বন্দর, বিমান বন্দর এবং ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনসহ বিভিন্ন সংস্থার মাঝে ১০ লাখ পিস মাস্ক বিতরণ করেছে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিজিএমইএর সহ-সভাপতি মো. নাসির উদ্দিন, পরিচালক মো. মহিউদ্দিন রুবেল, ডিআরইউর সাধারণ সম্পাদক মসিউর রহমান খান এবং সাংগঠনিক সম্পাদক মাইনুল হাসান সোহেল প্রমুখ।