চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘খুব ভালো আছি, এখন আছি বাংলাদেশের সেরা জায়গায়’

৯ দিন আগে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে অভিনেত্রী, নির্মাতা ও সংগঠক আফসানা মিমির। এতোদিন বাসায় থেকে চিকিৎসা নিলেও বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ‘কোথাও কেউ নেই’ এর এই অভিনেত্রী।

হাসপাতালে ভর্তি হলেও শারীরিকভাবে তিনি সুস্থ আছেন। করোনার কারণে হাসপাতালে আছেন শুনে কেউ যেন ভয় কিংবা দুঃশ্চিন্তা না করেন, সে কারণে সুহৃদ নজরুল সৈয়দের মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি বার্তা শেয়ার করে আফসানা মিমি বলেন, ‘সবাই হাসপাতালের কথা শুনলে ভয় পেয়ে যাবেন বা চিন্তা করবেন, তাই সুহৃদ নজরুল সৈয়দের মাধ্যমে সবাইকে বলতে চাই আমি খুব ভালো আছি। এখন আছি বাংলাদেশের সেরা জায়গায়।’

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

সেখানে প্রখ্যাত এই অভিনেত্রী আরো জানান, সারাজীবন সবার ভালোবাসা পেয়েছি। যখন কোনো বিপদ এসেছে জীবনে, সবাই পাশে থেকেছেন। গত ৯ দিন হলো আমি করোনা পজিটিভ। সৃষ্টিকর্তার অসীম দয়ায় আমি ভালো আছি। আজ ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়’ (বিএসএমএমইউ) এ ভর্তি হলাম।

বাসা ছেড়ে কেন হাসপাতালে এসেছেন, সে ব্যাখ্যাও দিলেন আফসানা মিমি। জানিয়েছেন, ভাবলাম ৮৪ বছরের বাবা আর কতোদিন ঘরবন্দী থাকবেন? বরং আমি হাসপাতালে থেকে ট্রিটমেন্ট নি। বাবাও একটু বাড়ির মধ্যে আরাম করে হাঁটা চলা করুন আর বাড়ির কাজে যারা সাহায্য করেন তারাও আরেকটু নিরাপদ থাকুন। তাহলে আমারও এর চেয়ে বিপদের সম্ভাবনা থাকবে না।

বিজ্ঞাপন

সবশেষে এই অভিনেত্রী বলেন, ‘আমি কিন্তু শুধু করোনা পজিটিভ না, আমি সবসময়ই খুব পজিটিভ।’

নব্বই দশকে মঞ্চ নাটক দিয়ে নাট্যকর্মী হিসেবে কাজ শুরু করেন আফসানা মিমি। নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়ের নিয়মিত সদস্য হিসেবে কাজ করেন বেশ কয়েক বছর। ক্যারিয়ারের শুরুতে টেলিভিশনে ‘কোথাও কেউ নেই’ নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমে পরিচিতি লাভ করেন। তারপর থেকে তিনি বহু টেলিভিশন নাটক এবং কিছু চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।

বিগত কয়েক বছর ধরে টেলিভিশনের নাটক নির্মাতা হিসেবে কাজ করছেন। সেই সাথে শিশুদের সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের সাথে সম্পৃক্ত করতে তাঁর প্রতিষ্ঠিত স্কুল ‘ইচ্ছেতলা’ নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছে।

গেল নভেম্বরে তিন বছর মেয়াদে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির পরিচালক পদে নিয়োগ পেয়েছেন অভিনেত্রী ও নির্মাতা আফসানা মিমি।