চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

খালেদা জিয়ার অবস্থা স্থিতিশীল: মির্জা ফখরুল

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জানিয়েছেন, বেগম খালেদা জিয়ার অবস্থা স্থিতিশীল। শ্বাসকষ্টের কারণে তাকে সিসিইউতে নেয়া হয়েছিল, এখন অক্সিজেন চলছে।

জাতীয়তাবাদী শ্রমিকদলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও মহান মে দিবস উপলক্ষে ভার্চুয়াল আলোচনাসভায় একথা বলেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

মির্জা ফখরুল আরো জানান, পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে চিকিৎসকরা আশাবাদী যে তিনি দ্রুত সুস্থ হয়ে যাবেন। দেশের সবাই দেশনেত্রীর জন্য প্রার্থনা করছেন।

খালেদা জিয়ার সর্বশেষ অবস্থা পর্যালোচনা করতে মঙ্গলবার দুপুরের পর ১০ সদস্যবিশিষ্ট মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা আলোচনায় বসবেন।

গত ১১ এপ্রিল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হন খালেদা জিয়া। তখন থেকেই তার অবস্থা স্থিতিশীল আছে বলেই জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। ২৪ এপ্রিল রাতে পাওয়া দ্বিতীয় টেস্টের ফলাফলেও তার করোনা পজিটিভ আসে।

৩ মে শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় তাকে এভার কেয়ার হাসপাতালের সিসিইউতে (করোনারি কেয়ার ইউনিট) নেওয়া হয়।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাগারে ছিলেন খালেদা জিয়া।

২০২০ সালের ২৫ মার্চ ৭৬ বছর বয়সী খালেদা জিয়াকে ২৫ মাস কারাভোগের পর সরকার শর্ত সাপেক্ষে ছয় মাসের জন্য দণ্ড স্থগিত করে মুক্তি দেয়। এরপর দ্বিতীয় দফায় ফের ছয় মাস সাজা স্থগিতের মেয়াদ বাড়ানো হয়। সে মেয়াদ ২৫ মার্চ শেষ হয়।

তার আগেই পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আবার বাড়ানো হয় সাজা স্থগিতের মেয়াদ।

গত ৩ মার্চ খালেদা জিয়ার দণ্ডাদেশ মওকুফসহ তার উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশ নেওয়ার আবেদন করে পরিবার। খালেদা জিয়ার ভাই শামীম ইস্কান্দার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর এ আবেদন করেন।

কিন্তু বেশ কিছু শর্ত সাপেক্ষে বেগম খালেদা জিয়ার কারাদণ্ড স্থগিতের মেয়াদ আরও ছয় মাস বাড়ায় সরকার।

এ সময়ে নিজের পছন্দ অনুযায়ী তিনি যে কোনও হাসপাতাল বা যে কোনও বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে পারবেন। তবে চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে যেতে পারবেন না বলা হয়েছিলো।

বিজ্ঞাপন