চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ক্লিনিভা হেলথকেয়ার হাতের মুঠোয় পৌঁছে দিচ্ছে স্বাস্থ্যসেবা

কোভিড-১৯ এর এই সময়ে বাংলাদেশের স্বাস্থ্যসেবা আরও সহজ ও সুলভ করতে ক্লিনিভা নিয়ে এসেছে অনলাইনভিত্তিক ডক্টর কন্সাল্টেশন। এটি অন্যান্য টেলিমেডিসিন সার্ভিস থেকে বেশ আলাদা। এককালীন ভিডিও কন্সাল্টেশনের পর ডাক্তার ও রোগী সংযুক্ত থাকবে পরবর্তী বেশ কয়েকদিন।

‘ক্লিনিভা হেলথকেয়ার টেকনোলজি’ মূলত ডাক্তার ও পেশেন্টের জন্য দুটি আলাদা অ্যাপ এর সমন্বয়ে একটি প্লাটফর্ম তৈরী করেছে। এটি একটি মার্কেটপ্লেস, যা হাতের মুঠোয় পৌঁছে দিচ্ছে স্বাস্থ্যসেবা।

বিজ্ঞাপন

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ক্লিনিভা জানায়, অ্যাপটি গুগল প্লে-স্টোর থেকে বিনামূল্যে ডাউনলোড করা যাবে। অ্যাপ ডাউনলোড লিঙ্ক: http://bit.ly/clnvptn

পেশেন্ট তার সমস্যা চিহ্নিত করে অথবা স্পেশালিটি নির্ধারণ করে ডাক্তার খুঁজতে পারবেন। রোগীর সমস্যা ও অবস্থানের ভিত্তিতে ক্লিনিভা বেশ কয়েকজন ডাক্তারের প্রোফাইল রোগীর সামনে নিয়ে আসে।

বিজ্ঞাপন

ক্লিনিভার অভিজ্ঞ বিশেষজ্ঞ ডাক্তার অথবা জেনারেল ফিজিশিয়ান নির্বাচন করে, নির্ধারিত ফী (১৫০ টাকা থেকে শুরু) প্রদান করে রোগী ভিডিও কন্সাল্টেশনে যুক্ত হতে পারেন নিমেষেই।

ডাক্তার বিস্তারিত আলোচনা করে অ্যাপ থেকেই ডিজিটাল প্রেসক্রিপশন তৈরি করে পেশেন্টকে দেন। কিন্তু এখানেই শেষ নয়। পেশেন্ট পরবর্তী পাঁচদিন চ্যাট এর মাধ্যমে যুক্ত থাকতে পারছেন, ডায়াগনস্টিক রিপোর্ট পাঠাতে পারছেন এবং নিজের সমস্যার অগ্রগতিও জানাতে পারছেন।

রিপোর্ট ও সমস্যার অগ্রগতি দেখে ডাক্তারও প্রয়োজনে পরিবর্তন করে দিচ্ছেন রোগীর প্রেসক্রিপশন। আর এর পুরোটাই হচ্ছে খুব ইউজার ফ্রেন্ডলি মোবাইল অ্যাপ থেকে যা যে কেউ স্বাচ্ছন্দের সাথে ব্যবহার করতে পারবে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সেবাদানকারী ডাক্তার নির্দিষ্ট সংখ্যক নয়, বরং যেকোন রেজিস্টার্ড ডাক্তার নিজের প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে এবং সময়সূচী ও ফী নির্ধারণ করে অংশ নিতে পারে আমাদের সেবায়। ডাক্তার চাইলে নিজের চেম্বারে আসা রোগীদের ফলোআপ সেবা এই অ্যাপের মাধ্যমে দিয়ে জনসমাগম কমাতে পারেন।

ডাক্তারদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে ক্লিনিভার সক্ষমতা। প্রায় প্রতিটি স্পেশালিটির বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক আছেন এখানে, যা কিনা এখনকার গৃহবন্দী পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের জন্য অত্যন্ত ফলপ্রসূ হচ্ছে। সারাবিশ্ব যখন করোনাভাইরাসে জর্জড়িত ঠিক তখনি বাংলাদেশের স্বাস্থ্যসেবায় ক্লিনিভার মত স্টার্টআপ কিছুটা হলেও ছড়িয়ে দিচ্ছে আশার আলো।