চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ক্রিকেট বিশ্বকাপে নেমে গেল রেসলিংও

ঠাট্টা করে নয়, বলিউড অভিনেতা রণবীর সিংকে বাস্তবেই আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন বিখ্যাত আমেরিকান রেসলার ব্রক লেসনার। এই রেসলারের পক্ষ থেকে নোটিশটি পাঠিয়েছেন তার ব্যক্তিগত এজেন্ট পল হেইম্যান।

তবে, ‘ব্যক্তিগত এজেন্ট’ বললে আবার মন খারাপ করেন হেইম্যান। তার দাবি, তিনি শুধুমাত্র লেসনারের ব্যক্তিগত এজেন্ট নন, পেশায় আইনজীবীও। আর লেসনারের যাবতীয় আইনি কাজ দেখাশোনা করেন তিনিই। রণবীরের বিরুদ্ধে অভিযোগ, হেইম্যানের কপিরাইট করানো সংলাপ তিনি চুরি করে বসিয়েছেন নিজের ছবির ক্যাপশনে।

বিজ্ঞাপন

১৬ জুন ভারত-পাকিস্তান হাইভোল্টেজ ম্যাচের সাক্ষী থাকতে ম্যানচেস্টারে গিয়েছিলেন রণবীর সিং। কমেন্ট্রি বক্স থেকে ধারাভাষ্য দেয়ার পাশাপাশি ক্রিকেট তারকাদের সঙ্গে মাঠে আলাপও করেন তিনি।

সৌরভ গাঙ্গুলি, শচীন টেন্ডুলকার, বিরাট কোহলি, শেখর ধাওয়ান, বীরেন্দ্র শেবাগ ও হরভজন সিংয়ের মতো একাধিক ভারতীয় ক্রিকেটারের সঙ্গে সেলফি তুলে নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেন। তবে হার্দিক পান্ডিয়ার সঙ্গে রণবীরের সেলফিতেই ঘটে বিপত্তি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেসনারের আইনজীবীর হুমকির মুখে পড়তে হয় তাকে।

বিজ্ঞাপন

সেলফি নিয়ে কোনো সমস্যা নেই। সমস্যা হয়ে দাঁড়ায় ছবির শিরোনাম। হার্দিক পাণ্ডিয়ার সঙ্গে ছবি পোস্ট করে রনবীর লিখেছেন, ‘ইট, স্লিপ, ডমিনেট, রিপিট। দ্য নেম ইজ হার্দিক।’

এই কথাগুলি লেখার জন্যই তাকে সতর্ক করেছিলেন হেইম্যান।

সেই সতর্কবার্তার পর আবারও মুখ খুলেছেন হেইম্যান। এখন বলছেন, তার বা লেসনানের সঙ্গে লাগার মতো মানুষ পান্ডিয়া এখনো হননি।

সোমবার ভারতের নিউজ১৮কে হেইম্যান বলেছেন, ‘সিং স্পষ্টতই একজন যিনি পল হেইম্যান হওয়ার স্বপ্নে ঘুরে বেড়াচ্ছেন, আর হার্ডিক পান্ডিয়া ব্রক লেসনার হতে চান কারণ লেসনার বিশ্বব্যাপী অনেক বেশি সফল এবং বিখ্যাত। যদি তারা আমাদের পথে আসতে চেষ্টা করে তবে তাদের জন্য ভয়ও আছে।’

“ইট, স্লিপ, কনক্যোয়ার, রিপিট” -এই কথাগুলো আসলে ব্রক লেসনারের হয়ে ব্যবহার করেন পল হেইম্যান। ২০০৩ সালে ‘ইট, স্লিপ, কনক্যোয়ার, রিপিট’ কথাটির কপিরাইট করিয়েছিলেন হেইম্যান এবং লেসনার। তাই রণবীরের ক্যাপশনে ওই শব্দগুলি দেখে রীতিমতো উত্তেজিত হয়ে উঠেছিলেন। হেইম্যানের ওই নোটিশ যে ঠাট্টা করার জন্য নয়, পরে একটি সংবাদ সংস্থাকে জানান সেটাও।

Bellow Post-Green View