চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কেন ২৫ ডিসেম্বর বিটিভি’র যাত্রা শুরু?

প্রশ্নটি তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুর। সোমবার সকালে বিটিভি’র ৫৪ বছরে পদার্পণ উপলক্ষে চ্যানেল আই চেতনা চত্বরে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তিনি। সেখানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে যারা ৫৩ বছর ধরে বাংলাদেশ টেলিভিশনকে জড়িয়ে ছিলেন তাদের ধন্যবাদ জানান। ২৫ ডিসেম্বর বড়দিন উপলক্ষে খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীসহ সকল ধর্মের মানুষদের তিনি শুভেচ্ছা জানান। এরপর প্রশ্ন রেখে বলেন: আমি চিন্তা করছিলাম, পাকিস্তানীরা খ্রিস্টানদের এই বড়দিনকে কেন টেলিভিশনের যাত্রা শুরুর দিন হিসেবে বেছে নিলো?

তথ্যমন্ত্রীর প্রশ্নের পরিপ্রেক্ষিতে চ্যানেল আই’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর বলেন, ‘আমি যতদূর জানি, তৎকালীন পাকিস্তান টেলিভিশন ছিলো জাপানের এনইসি প্রজেক্ট। প্রজেক্টের শর্ত অনুযায়ী ২৫ ডিসেম্বর ছিল টেলিভিশনের যাত্রা শুরু করার শেষ কাজের দিন। আর তখন ২৫ ডিসেম্বর পাকিস্তান সরকারের ছুটির দিন ছিল না। সেই সময়ের মধ্যে টেলিভিশনটা যদি উদ্বোধন করা যায় ঢাকায়, তাহলে এই প্রজেক্টটা শুরু করা যাবে। তাই জামিল চৌধুরী সাহেব বাধ্য হয়েই ২৫ ডিসেম্বর টেলিভিশনের সম্প্রচার শুরু করেন।’

Advertisement

সোমবার সকালে চ্যানেল আইয়ের চেতনা চত্বরে বিটিভির ৫৩ বছর পূর্তিতে বিশেষ অনুষ্ঠানে গান পরিবেশন করেন সাদী মোহাম্মদ ও রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা। গানের পাশাপাশি টেলিভিশনে শুরু থেকে কাজ করা শিল্পী ও কলাকূশলীরা স্মৃতিচারণ করেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ, ইমপ্রেস গ্রুপের পরিচালক এবং প্রকৃতি ও জীবন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মুকিত মজুমদার বাবু, বিশিষ্ট রন্ধনশিল্পী কেকা ফেরদৌসী, বিটিভির মহাপরিচালক এসএম হারুন-অর-রশিদ, নারী উদ্যোক্তা কণা রেজাসহ বিশিষ্টজনেরা।