চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কুকুর বাঁচালো নবজাতকের প্রাণ

থাইল্যান্ডে কুকুরের জন্য বেঁচে গেল জীবন্ত কবর দেয়া এক নবজাতকের প্রাণ। শিশুটিকে উদ্ধারে তার মাটি খোঁড়ার চেষ্টার কারণে বাচ্চাটি বেঁচে যায়। উদ্ধার হওয়া নবজাতক এখন সম্পূর্ণ সুস্থ।

থাইল্যান্ডের ব্যান নং খাম গ্রামে বাড়ির আঙিনায় ঘোরাঘুরি করছিল পিং পং নামে পোষা কুকুরটি। সে সময় বাড়ির পাশে মাঠে ছোট্ট একটি শিশুর পা দেখতে পায় পিং পং। দুর্ঘটনায় নিজের এক পা হারানো কুকুরটি শিশুটিকে বাঁচাতে ছুটে যায়। তিন পা দিয়েই মাটি খুঁড়তে শুরু করে আর উচ্চস্বরে ডাকতে থাকে।

বিজ্ঞাপন

পিং পংয়ের চিৎকার শুনে আশপাশের মানুষ এসে নবজাতককে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ছেলে শিশুটি এখন সুস্থ আছে।

বিজ্ঞাপন

আসলে কী ঘটেছিল?
বাবা-মার কাছে লুকোতেই সদ্য জন্ম নেয়া শিশুটিকে জীবন্ত কবর দেয় তার ১৫ বছর বয়সী মা। শিশুটি জীবিত উদ্ধার হওয়ায় নবজাতকের মায়ের বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ এনেছে থাইল্যান্ড পুলিশ।

থাইল্যান্ড-নবজাতক শিশু-কবর-কুকুর
মালিকের সঙ্গে পিং পং

নিজের কাজের জন্য শিশুটির কিশোরী মা দুঃখপ্রকাশ করেছে। অন্যদিকে যাদের কাছ থেকে লুকোতে গিয়ে নিজের সদ্যজাত সন্তানকে জীবন্ত কবরের চেষ্টা, নানা-নানীই শিশুটির লালনপালনের দায়িত্ব নিয়েছেন।

মৃত্যুর মুখ থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা কুকুর পিং পংয়ের মনিব জানিয়েছেন, তার কুকুরটি খুব বিশ্বস্ত। গ্রামের সবার কাছেও প্রিয় পিং পং।