চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কাছিম সংরক্ষণে বন অধিদপ্তর এবং প্রকৃতি ও জীবন ফাউন্ডেশনের চুক্তি সই

বিলুপ্তপ্রায় বাটাগুর বাস্কা বা বড় কাইট্টা জাতের কাছিম সংরক্ষণে বন অধিদপ্তরের সঙ্গে নতুন করে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছে প্রকৃতি ও জীবন ফাউন্ডেশন।

এর আলোকে আগামী দুইবছর এই কাছিম নিয়ে গবেষণা, এদের সংখ্যা বাড়ানো, আবাসস্থল সংরক্ষণ এবং জনসচেতনতার কাজ চলবে। মহাবিপন্ন এই কাছিমকে আবার প্রকৃতিতে ফিরিয়ে দিতে সফল হবেন বলে আশা করছেন উভয়পক্ষ।

বিজ্ঞাপন

মহাবিপন্ন কাছিম নর্দার্ন রিভার টেরাপিন। এর বৈজ্ঞানিক নাম বাটাগুর বাস্কা। বাংলাদেশে একে বড় কাইট্টা নামে ডাকা হয়। মূলত বাংলাদেশ এবং ভারতের সুন্দরবন এলাকার হালকা লবণাক্ত এবং কর্দমাক্ত এলাকা এর আবাসস্থল।

বাটাগুর বাস্কা প্রকল্পের আওতায় বাংলাদেশের বনবিভাগ, প্রকৃতি ও জীবন ফাউন্ডেশন, অস্ট্রিয়ার ভিয়েনা জু এবং টারটেল সারভাইভাল এলায়েন্স এ কাছিম সংরক্ষণে কাজ করছে। টিকে থাকা কয়েকটি কাছিমের ডিম থেকে বাচ্চা ফোটানোর মাধ্যমে সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এসব বাচ্চা বড় করে আবার প্রকৃতিতে ফিরিয়ে দেয়া, সুন্দরবন এলাকায় এর আবাসস্থল নিরাপদ করা এবং জনসচেতনতা সৃষ্টি করতে আরো দুই বছরের সমঝোতা স্বারক স্বাক্ষর করেছে বন অধিদপ্তর এবং প্রকৃতি ও জীবন ফাউন্ডেশন।

প্রকল্পের আরো দুই অংশীদার অস্ট্রিয়ার ভিয়েনা জু এবং টারটেল সারভাইভাল এলায়েন্স আগের মতোই কারিগরি সহায়তা দেবে।

গবেষণার অংশ হিসেবে আবাসস্থল এবং গতিবিধি সম্পর্কে ধারণা পেতে পিঠে স্যাটেলাইট ট্রান্সমিটার লাগিয়ে কিছু কাছিম প্রকৃতিতে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

বিস্তারিত ভিডিও রিপোর্টে:

Bellow Post-Green View