চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনার মিউটেটেড স্ট্রেনের বিরুদ্ধে ভ্যাকসিন যথেষ্ট নয়

সম্প্রতি করোনার যে বিবর্তিত ধরনটি (মিউটেটেড স্ট্রেন) সাউথ আফ্রিকায় ছড়িয়ে পড়েছে তার সংক্রমণ থেকে সুরক্ষিত হওয়ার জন্য করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন যথেষ্ট নয় বলে জানিয়েছে একদল গবেষক। 

মার্কিন রকফেলার ইউনিভার্সিটির একদল গবেষক বলছেন, শুধু তাই নয় কোন আক্রান্ত ব্যক্তি করোনার ভ্যাকসিন গ্রহণ করলেও আবারও নতুন ধরণে সংক্রমণ হতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে তথ্য পাওয়া গেছে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

তবে গবেষণার এই সিদ্ধান্তটি এখনই চূড়ান্ত নয়, তবুও কীভাবে মহামারিকে নিয়ন্ত্রণে আনা হবে তার সম্ভাব্য প্রভাব রয়েছে।

যারা ইতিমধ্যে সংক্রমণ থেকে সেরে উঠেছে এমন ব্যক্তিদের জন্য ভ্যাকসিন দেওয়ার সমালোচনামূলক একটা প্রভাব রয়েছে গবেষণায়।

আরও বলা হচ্ছে, সব দেশে এখনই সমানভাবে ভ্যাকসিন যেহেতু পৌঁছায়নি, সীমিত সরবরাহের  জন্য তাই করোনার নতুন ধরণ ছড়িয়ে পারতে পারে খুব দ্রুত। কারণ কেউ আগে করোনায় আক্রান্ত হলে আবারও আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

মার্কিন সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ অ্যান্টনি ফাউসি বলেছেন, যুক্তরাজ্য থেকে আসা তথ্য বিশেষণ করে দেখা গেছে, করোনার ভ্যাকসিন নতুন ধরণ আটকাতে সক্ষম। তবে যদি কোন ভাইরাস উল্লেখযোগ্য পরিমাণ নিজের চরিত্র বদলায় তাহলে বিষয়টি উদ্বেগজনক।

নতুন সংক্রমিতদের মধ্যে এমন ১১ জনকে পাওয়া গেছে, যারা সাউথ আফ্রিকায় গিয়েছিলেন বা সাউথ আফ্রিকা থেকে ফেরা কারো সংস্পর্শে গিয়েছিলেন। সাউথ আফ্রিকা থেকে আসা নতুন ধরনের এই ভাইরাসের নাম দেয়া হয়েছে সার্স-কোভিড-২।

এক পরিসংখ্যানে দেখা যায়, সাউথ আফ্রিকায় ৩০ শতাংশ মানুষের দেহে করোনার অ্যান্টিবডির উপস্থিতি পাওয়া গেছে। তারা করোনার আগের ধরণের সাথে মোকেবিলা করতে পারলেও নতুন ধরণের সাথে কতটা প্রস্তুত সেটা নিয়ে শঙ্কা রয়েছে।

গত ডিসেম্বরে প্রথম সাউথ আফ্রিকায় করোনাভাইরাসের এই নতুন স্ট্রেইন বা ধরনটি ধরা পড়ে। অন্য ভাইরাসের চেয়ে এটি দ্রুত ছড়ায়। আর এই ভাইরাস মানবদেহের কোষগুলোকে সহজে কাবু করতে সক্ষম।

অন্যদিকে যুক্তরাজ্য এবং ব্রাজিলেও দ্রুত সংক্রমণ ছড়ায় এমন ধরনের ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। যুক্তরাজ্যের ধরনটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এরই মধ্যে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। আগামী মার্চ নাগাদ এটিই যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান ভাইরাস হিসেবে আবির্ভূত হতে পারে বলে দেশটির সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল (সিডিসি) ও ন্যাশনাল ইনস্টিটিউটস অব হেলথ জানিয়েছে।

বিজ্ঞাপন