চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘কঙ্গনাকে মানসিক হাসপাতালে বা কারাগারে পাঠানো উচিত’

একের পর এক বেফাঁস মন্তব্য করে খবরের শিরোনামে বার বার যায়গা করে নিচ্ছেন কঙ্গনা। এবার ইনস্টাগ্রামে শিখ সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে অবমাননাকর ভাষা ব্যবহার করায় তার বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ করেছে দিল্লি শিখ গুরুদুয়ারা ব্যবস্থাপনা কমিটি।

সম্প্রতি ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদির কৃষি আইন প্রত্যাহারের বিষয়টি মেনে না নিয়ে ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর প্রসঙ্গে কঙ্গনা তার ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন, ‘খালিস্তানি জঙ্গিরা হয়তো এখন সরকারের হাত আটকে রেখেছে। কিন্তু সেই একজন নারীর (ইন্দিরা গান্ধী) কথা আমাদের ভুলে গেলে চলবে না। তিনি শিখদের নিজের জীবনের বিনিময়ে মশার মতো মেরেছিলেন। তিনি দেশ ভাগ হতে দেননি। এমনকি এখনও তার নাম শুনে তারা ভয়ে কাপে। সেই ভয় কাটাতে তাদের একজন গুরুর প্রয়োজন।’

বিজ্ঞাপন

কঙ্গনার এই মন্তব্যের জেরে শনিবার মন্দির মার্গ থানার সাইবার সেলে অভিযোগটি দায়ের করে দিল্লি শিখ গুরুদুয়ারা ব্যবস্থাপনা কমিটি। অভিযোগে বলা হয়েছে যে অভিনেত্রী শিখ সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে ‘অবমাননাকর এবং অপমানজনক’ ভাষা ব্যবহার করেছেন। কমিটির সভাপতি মাজিন্দর সিং বললেন, ‘কঙ্গনাকে মানসিক হাসপাতালে বা কারাগারে পাঠানো উচিত’।

কঙ্গনা রানাওয়াতের পরবর্তী ছবির নাম ‘ইমারজেন্সি’। এই ছবিতে ইন্দিরা গান্ধীর ভূমিকায় দেখা যাবে তাকে।

বিজ্ঞাপন