চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

এবারও ‘সেরা ব্যান্ড’ এর পুরস্কার শিরোনামহীনের দখলে

ঐক্য চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডস ২০২০

টানা দ্বিতীয় বারের মতো ‘সেরা ব্যান্ড’ নির্বাচিত হয়েছে শিরোনামহীন…

সংগীতে দেশের সবচেয়ে বড় অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান ‘চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডস’। যার ১৫ তম আসর হয়ে গেল গত ১০ ডিসেম্বর সন্ধ্যা-রাতে। করোনাকালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে রাজধানী ঢাকার একটি পাঁচ তারকা হোটেলে সম্পন্ন হয়েছে পুরস্কার প্রদানের অন্যতম এই আসর। যেখানে সংগীতের বিভিন্ন বিভাগে দেয়া হয়েছে পুরস্কার।

আর এবার ‘সেরা ব্যান্ড’ হিসেবে ‘ঐক্য চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডস ২০২০’ পেয়েছে দেশের নামকরা ব্যান্ড দল ‘শিরোনামহীন’।

বিজ্ঞাপন

তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় ব্যান্ডটির প্রতিষ্ঠাতা, গীতিকার ও বেইজ গিটারিস্ট জিয়াউর রহমান জিয়া চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, টানা দ্বিতীয়বারের মতো ‘সেরা ব্যান্ড’ এর পুরস্কার পেল শিরোনামহীন। এটি নিঃসন্দেহে আমাদের পুরো দলের জন্য অনুপ্রেরণার।

চ্যানেল আইয়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে জিয়া বলেন, ‘পুরস্কার অর্জনতো অবশ্যই সামনে এগিয়ে যেতে আরো অনুপ্রেরণা দেয়। যে কোনো আর্টিস্টটের স্বীকৃতি থাকতে হয়। মোস্টলি আমরা চ্যানেল আইয়ের কাছে গ্রেটফুল এই কারণে যে, আমাদের দেশে সরকারি বেসরকারি বহু পুরস্কার প্রদানের বিষয়টি আছে। কিন্তু কোনো অ্যওয়ার্ড শোতে ‘ব্যান্ড মিউজিক’ ক্যাটাগরিটি নাই। সব জায়গাতে ‘সংগীত’ নামে একটি বিভাগ থাকলেও সেটা আধুনিক বা সিনেমার গানের জন্য। ব্যান্ড মিউজিক যারা করেন, তাদের সেখানে সাবমিট করারই সুযোগ নেই।’

পাল্টা প্রশ্ন রেখে এই মিউজিশিয়ান বলেন, ‘আমরা যারা ব্যান্ড করি, তারাতো কোনো উৎসাহ উদ্দীপনা পাচ্ছি না। কীভাবে নতুন সৃষ্টির জন্য ইন্সপায়ার্ড হবো?’

তিনি বলেন, ‘ত্রিশ বছর ধরে কেউ যখন ব্যান্ড মিউজিক করেন, তারতো অন্তত একটু স্বীকৃতির দরকার আছে, নাকি! সেটাতো আমাদের এখানে নেই। তো সেই জায়গায় চ্যানেল আই গত ১৫ বছর ধরে এই অ্যাওয়ার্ড শোটিকে যে কন্টিনিউ রেখেছে, এটা যারা ব্যান্ড মিউজিক করেন তাদের জন্য অন্তত আশাবাদের খবর। ভালো কাজ করে অ্যাওয়ার্ড বা উৎসাহ উদ্দীপনা সবাই প্রত্যাশা করেন, এটাই দুনিয়ার নিয়ম। কিন্তু আমরা এমন একটা জায়গায় বাস করি, সেখানে সামান্য এনকারেজমেন্ট এর বিষয়টাও নেই। এমনিতেই বিপদ আপদেও ব্যান্ড শিল্পীদের কোনো সোশাল নিরাপত্তার বিষয়টি নাই, অন্যদিকে মানুষ এখন গান শুনে ফ্রিতে। সেই জায়গায় যদি নূন্যতম এনকারেজমেন্টের ব্যাপারটাও না থাকে তবে আর্টিস্টরা কেন মিউজিক করবে? তো এসব কারণে আমরা ব্যান্ডের পক্ষ থেকে চ্যানেল আইয়ের প্রতি খুবই গ্রেটফুল যে, তারা সংগীতের অন্যান্য বিভাগের পাশাপাশি ব্যান্ড মিউজিককেও গুরুত্ব দিচ্ছেন।’

করোনার কারণে আপাতত দলীয় প্র‌্যাকটিস বন্ধ আছে বলে জানান জিয়া। সর্বশেষ ১ ডিসেম্বর চ্যানেল আই ব্যান্ড ফেস্টে পারফর্ম করার আগে কিছুদিন জ্যামিং করেছেন।

নতুন গান নিয়ে জানতে চাইলে শিরোনামহীনের এই বেইজ গিটারিস্ট বলেন, ‘আমরা তো নিয়মিত গান ভিডিও প্রকাশ করার উদ্যোগ নিয়েছিলাম। তারই ধারাবাহিকতায় বেশ কয়েকটি গান শ্রোতা-দর্শকরাও দেখেছেন, দারুণ প্রতিক্রিয়া পেয়েছি। এখনও আমাদের দুটি গান পুরোপুরি কমপ্লিট। এরমধ্যে একটি গানের ভিডিওর কাজ সম্পন্ন হয়েছে, এবং অন্যটির ভিডিও করোনার কারণে থমকে আছে। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে যতো তাড়াতাড়ি সম্ভব গানগুলো শ্রোতাদর্শকদের সামনে আনতে উদগ্রীব শিরোনামহীন।

এদিকে চ্যানেল আইয়ের অনুষ্ঠান বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে, ‘ঐক্য চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডস ২০২০’ অনুষ্ঠানটির রেকর্ডেড ভার্সন আগামি বছরের প্রথম দিনেই চ্যানেল আই ও চ্যানেল আই অনলাইনের ফেসবুকে সম্প্রচার করা হবে।