চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

উত্তরাখন্ডে তুষারধস-জলোচ্ছ্বাসে ১৪ জনের মরদেহ উদ্ধার

ভারতের উত্তরাখন্ডে হিমবাহ গলে তুষারধসের পর বাঁধ ভেঙে জলোচ্ছ্বাসে এ পর্যন্ত ১৪ জনের মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। এখনও নিখোঁজ ২০০ এর বেশি মানুষ। ১৬ জনকে জীবিত উদ্ধার করতে পেরেছেন উদ্ধারকারীরা। প্রতিকূল পরিস্থিতিতে উদ্ধার কাজে দেরি হচ্ছে। 

রোববার সকালে হঠাৎই হিমালয় থেকে আসা নন্দাদেবী হিমবাহ ধসে তা একটি বাঁধের ওপর গিয়ে পড়ে। হিমবাহ ভেঙে তুষারধস হয়ে যায় উত্তরাখন্ডের চমোলি এলাকায়। ধোলিগঙ্গায় পানির স্তর বাড়তে শুরু করে। পানির চাপে একপর্যায়ে ঋষিগঙ্গা জলবিদ্যুৎ প্রকল্প ভেঙে পড়ে। বাঁধ ভেঙে জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হয়েছে বেশ কয়েকটি গ্রাম।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

সেখানে উদ্ধার কাজ চললেও এখনও নিখোঁজ অনেকেই। তবে একটি সুড়ঙ্গ থেকে ১২ জন শ্রমিক উদ্ধারের খবর আশা জাগিয়েছে। আরও একটি টানেলে শ্রমিক আটকে থাকার কথাও জানা গেছে।

বিজ্ঞাপন

এ ঘটনায় উদ্ধার কাজে অংশ নিচ্ছে ভারতীয় সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর সদস্যরা। উত্তরাখন্ডের ৪ জেলায় উচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। পানির ঢল নেমে আসায় উত্তরপ্রদেশে গঙ্গার দু’পারেও উচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়। আটকে পড়েন বহু পর্যটক।

এক টুইটবার্তায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়েছেন, পরিস্থিতির ওপর সার্বক্ষণিক নজর রাখছেন তিনি। পরিস্থিতি মোকাবেলায় সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছে উত্তরাখন্ড ও কেন্দ্রীয় সরকার।

এর আগে, ২০১৩ সালেও উত্তরাখন্ডে অতিবৃষ্টি ও ভূমিধসে প্রায় ৬ হাজার মানুষের প্রাণহানি হয়।