চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ইসরাইলের ‘গোয়েন্দা শকুন’ বিতর্কের অবসান

গুপ্তচর সন্দেহে আটক একটি ইসরাইলী শকুনকে ফেরত দিয়েছে লেবানন।গত মঙ্গলবার আটক ইসরায়েলী শকুনটিকে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষীবাহিনীর মধ্যস্থতায় ইসরাইলে ফেরত পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির কর্মকর্তারা। ইসরাইলী কর্তৃপক্ষ জানায়, যে শকুনটি লেবাননের গ্রামবাসীর হাতে ধরা পড়েছিল অবশেষে তা তারা ফিরিয়ে নিতে সক্ষম হয়েছে।

বিবিসি’র খবরে বলা হয়, গত মঙ্গলবার লেবাননের একটি গ্রামের বাসিন্দারা শকুনটি আটক করে। পাঁচ ফুট ছয় ইঞ্চি চওড়া ডানাবিশিষ্ট এই শকুনটি ইসরাইলের একটি বন্যপ্রাণী সংরক্ষাণাগার থেকে লেবাননে উড়ে যায়।

পরবর্তীতে সেখানকার গ্রামবাসীরা ‘গোয়েন্দা’ সন্দেহে এটিকে আটক করে। শকুনটির লেজে একটি যন্ত্র সংযুক্ত থাকায় এটিকে সন্দেহ করে তারা। ইসরাইলের বন্যপ্রাণী কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এটি ছিল তাদের অভয়ারণ্যে সংরক্ষিত একটি শকুন। মধ্যপ্রাচ্যে শকুন পুনর্বাসন কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এটিকে গত বছর স্পেন থেকে আনা হয়েছিলো।

ইসরাইলের তেল আবিব বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তারা মূলত পাখিটিকে নিয়ে গবেষণা করছিল। আর এ কারণেই এর পাখায় ইন্টারনেট-সংযুক্ত স্থান শনাক্তকারী একটি ‘জিপিএস ট্রান্সমিটার’ লাগানো ছিল এবং পায়ে ‘তেল আবিব বিশ্ববিদ্যালয় ইসরাইল’ লেখা সংবলিত একটি ধাতুর রিং ছিলো।

ইসরাইলী ‘গুপ্তচর’ সন্দেহে শকুন আটকের ঘটনা এটাই প্রথম নয়। এর আগে ২০১১ সালেও একবার সৌদি আরবের হায়াল শহরে এমনই একটি শকুন আটক করা হয়েছিল। বিষয়টি পরে ইসরাইলী কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনায় করে মীমাংসা করা হয়।