চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আইসিসি ফিফাকে দেখো

সেন্সরশিপের কড়া সমালোচনায় হোল্ডিং

কয়েকদিন আগেই চলতি বিশ্বকাপে আম্পায়ারদের বাজে সিদ্ধান্তের কঠোর সমালোচনা করেছিলেন ধারাভাষ্য কক্ষে থাকা মাইকেল হোল্ডিং। পরে আইসিসির পক্ষ থেকে ধারাভাষ্যকারদের নিরপেক্ষ থাকার আহ্বান জানানো হয়। অভিভাবক সংস্থাটির এমন সেন্সরশিপের কড়া সমালোচনা করেছেন হোল্ডিং।

গত সপ্তাহে নটিংহ্যামশায়ারে বিশ্বকাপের হাই-ভোল্টেজ ম্যাচে মুখোমুখি হয় অস্ট্রেলিয়া ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ম্যাচে এক গেইলের বিপক্ষেই দুটি ভুল সিদ্ধান্ত দেন রেফারি। দুবারই রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান ক্যারিবিয়ান তারকা। এরপর যে বলটিতে আউট হন গেইল, সেটি নিয়েও বিতর্ক খো দেয়।

বিজ্ঞাপন

হোল্ডিং মনে করেন, অস্ট্রেলিয়ান খেলোয়াড়দের বাড়াবাড়ি রকমের উদযাপনের কারণেই সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে ভুল করেছেন আম্পায়াররা, ‘আমি অত্যন্ত দুঃখিত। কিন্তু এই ম্যাচের আম্পায়ারিং অনেক জঘন্য হয়েছে। এমনকি আমরাও যখন খেলতাম, নিয়ম এতো কঠোর ছিল না। আপনি একবার (ভুল) করতে পারেন। আপনি দুবার, তিনবার, চারবার আম্পায়ারের কাছে আবেদন করতে পারেন না। এটি প্রথমবার দেখলাম।’

বিজ্ঞাপন

অস্ট্রেলিয়ার লাগাতার আবেদনের কারণেই বাজে আম্পায়ারিংয়ের দৃষ্টান্ত হয়ে থাকল নটিংহ্যামশায়ারের ম্যাচটি। হোল্ডিং তেমনটাই বলছেন, ‘অস্ট্রেলিয়ার লাগাতার আবেদনে তারা (আম্পায়াররা) আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। তার মানে তারা দুর্বল। এটি দুই আম্পায়ারেরই জঘন্য আম্পায়ারিং।’

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, ওই ঘটনার পর আইসিসির পক্ষ থেকে হোল্ডিংকে মেইল করে টুর্নামেন্ট চলাকালীন সর্বোচ্চ স্ট্যান্ডার্ড বজায় রাখার আহ্বান জানানো হয়। এটিতেই চটেছেন উইন্ডিজ সাবেক।

সেন্সরশিপের কারণে ‘বিরক্ত’ হোল্ডিং বলেন, ‘যদি ওই আম্পায়াররা ফিফার অফিসিয়াল হত, তাদের ব্যাগপত্র গুছিয়ে বাড়ির পথ ধরার জন্য বলা হতো। তাদেরকে বিশ্বকাপের আরেকটি ম্যাচ পরিচালনার সুযোগ দেয়া হত না। একজন সাবেক ক্রিকেটার হিসেবে আমি মনে করি ক্রিকেট সর্বোচ্চ স্ট্যান্ডার্ড বজায় রেখে অনুষ্ঠিত হওয়া উচিত। আম্পায়াররা ‘বাজে সিদ্ধান্ত’ নেয়ার পরও আমাদের লক্ষ্য তাদের রক্ষা করা?’

যদিও ডেইলি মিরর জানাচ্ছে, হোল্ডিং এবং আইসিসির মধ্যকার ইস্যুর সমাধান হয়ে গেছে। বিশ্বকাপের ধারাভাষ্যকক্ষে যথারীতি নির্বিঘ্নে দায়িত্ব পালন করছেন ক্যারিবিয়ান গ্রেট।

Bellow Post-Green View