চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘অ্যাস্ট্রো’র ট্রেলার ও বঙ্গ সন্তান আসিফের হলিউড জয়

২০১৬ সালের হলিউড রিপোর্টারের প্রতিবেদনে বলা হয়, একটি সাইফাই বা কল্পবিজ্ঞান সিনেমা প্রকল্প, যা নতুন আবিস্কৃত গ্রহের অপহৃত ভিনগ্রহবাসীকে উদ্ধার করে পৃথিবীতে ফিরিয়ে আনাকে কেন্দ্র করে নির্মিত হবে।যেখানে ‘দ্য এক্সপেন্ডেবলস’ খ্যাত হলিউডের খ্যাতনামা অ্যাকশন অভিনেতা  গ্যারি ড্যানিয়েলস অভিনয় করবেন কেন্দ্রীয় ভূমিকায়। নিদেনপক্ষে তাকে কেন্দ্র করে আবর্তিত হবে সিনেমা।

এর পরিচালক আসিফ আকবর। তার পরিচালনায় আরো অভিনয় করবেন জোনাথন লিপিনকি, লুইস ম্যান্ডেলিয়র, মাইকেল পেয়ার ও এরিক রবার্টস। যার শুটিং হবে ভিনগ্রহবাসীদের স্থান বলে উৎসাহীদের কৌতুহলের জায়গা রসওয়েলে। যার কিছু শুট হবে দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া এবং লস অ্যাঞ্জেলসেও। মুক্তি পাবে ২০১৭ সালে।

হলিউড রিপোর্টারে ছাপা হওয়া এমন প্রতিবেদনের দুই বছর পর সেই সিনেমা শেষ হয়েছে। মুক্তিও পেতে চলেছে। আসছে জুলাইয়ে বাংলাদেশসহ বিশ্বজুড়ে মুক্তি পাবে ছবিটি।

‘অ্যাস্ট্রো’ ইউনিটের সঙ্গে পরিচালক আসিফ আকবর

আক্ষরিক অর্থে এটাকে বলা চলে বঙ্গ সন্তানের হলিউড জয়। আসিফ আকবর। গানের আসিফ আকবর নন। সিনেমার আসিফ আকবর। বাংলাদেশি আমেরিকান। ডাক নাম হৃদয়। একবছর বয়সে পরিবারের সাথে আমেরিকা পাড়ি জমান। সেখানে হাইস্কুল শেষ করার পরে তাঁর বাবা এনায়েত আকবর মিলনকে বলেন ,  বাবা, আমি ফিল্ম নিয়ে পড়তে চাই।’ তাঁর বাবা বলেন, ‘তোমার কোনোকিছুতে কোনোদিন না ছিলনা। এ সিদ্ধান্তেও নেই। ছেলে আসিফ আকবরকে বাবা ভর্তি করে দেন বিখ্যাত কলাম্বিয়া ইউনিভার্সিটি-তে। ২০০৭ সাল। ২০১১ সালে স্নাতক হন টেলিভিশন এবং সিনেমায় পরিচালনা বিষয়ে। পড়াশোনা করা অবস্থাতেই কাজ শুরু করেন আসিফ হলিউডের অনেক নির্মাতার সঙ্গে।  পরিচয় বাড়তে থাকে এবং আমেরিকান প্রযোজকেদের কাছে নিজেকে প্রমাণ করতে থাকেন।

শর্ট ফিল্ম বানিয়ে এবং বাংলাদেশের একটি চলচ্চিত্র প্রযোজনা করে তারপর হাত দেন নিজের প্রথম নির্মানে। আর হ্যাঁ, বাংলাদেশের চলচ্চিত্র প্রযোজনা শুনে চমকে উঠলেও তথ্য হল ২০১৫ সালে এসআই খান মিঠু পরিচালিত  ‘অচেনা হৃদয়’ সিনেমার প্রযোজক বাবা-ছেলে।  আমেরিকার আটটি প্রদেশের মূলধারার সিনেমা হলে পরিবেশক হিসেবে মুক্তি দেওয়ার কাজটিও করেছিলেন আসিফ আকবর এবং তার বাবা।

গ্যারি ড্যানিয়েলস

যার প্রথম হলিউড সাইফাই নির্মাণে তুলনা উঠেছে স্টার ওয়ার্স এবং জুরাসিক পার্ক এর সঙ্গে। চিত্রনাট্য লিখেছেন আসিফ এবং বার্নার্ড সেলিং। সিনেমাটিতে আরো অভিনয় করেছেন ‘থ্রি ইডিয়টস’ খ্যাত বলিউড অভিনেতা অমি বৈদ্য, মার্শাল হিলটন, অরসো চ্যাপলিন, ম্যাক্স ওয়াসা, স্পাইস উইলিয়াম ক্রসবি, গিয়াননি কাপালডি, লুক ক্রসবি, ক্রিস্টোফার শাওয়ার ম্যান, সিন ও ব্রায়েন ও কোর্টনি আকবর।

সিনেমাটির সংগীত পরিচালনা ও ট্রেলার এর শব্দ বিন্যাস করেছেন করেছেন জেমিনি সিনড্রোম এর ব্রায়ান স্টেলি মেডিনা । আবহ সংগীত করেছেন এরিক শ্রোডার। গান ‘উই আর দ্য ফলেন’ লিখেছে অলটারনেটিভ মেটাল ব্যান্ড।

চ্যানেল আই অনলাইনের সঙ্গে অনলাইন সাক্ষাৎকারে আসিফ বলেন, চলচ্চিত্রটির পোস্ট প্রোডাকশন্স শেষ হয়েছে গত মাসে। কানে প্রদর্শিত হচ্ছে ছবিটি জুলাইয়ে বিশ্বব্যাপী মুক্তির জন্য পরিবেশক প্রাপ্তির লক্ষ্যে। কান উৎসবের ফিল্ম মার্কেটের নিবন্ধিত প্রদর্শক এবং পরিবেশক হিসেবে কাজ করছে আমার প্রতিষ্ঠান অ্যাভেইল ফিল্মস। যারা ‘পোড়া মন ২’ এর প্রদর্শনীও করছে কানে।

বিজ্ঞাপন

চ্যানেল আই অনলাইনকে আসিফ বলেন, নতুন সময়ের সাই-ফাই ফ্র্যাঞ্চাইজি শুরু করতে চাই আমরা। তিনি আরো জানান, ইতিমধ্যে অ্যাস্ট্রো নভেল সিরিজ এর কাজ শেষ করেছেন তিনি ও তার সহ চিত্রনাট্যকার।

জুরাসিক পার্ক বা স্টার ওয়ার্সের সঙ্গে তুলনা প্রসঙ্গে আসিফ আকবর বিনম্র ভাবে বলেন, এটা অনেক বড় তুলনা। সেই সম্মানটা বজায় রাখার চেষ্টা করব। ২০১২ সালে আমার প্রথম প্রামাণ্য চিত্র যখন মুক্তি পায় তখন আমাকে নাইট শ্যামালান, মাইকেল মুর এর সঙ্গে। আর এখন  অ্যাস্ট্রো’র জন্য এমন সম্ভাষণ আমাকে আরো কাজে মনোযোগী হওয়ার প্রেরণা দেবে।

আগামী সপ্তাহে কানে যাবেন জানিয়ে আসিফ বলেন, ১৩ তারিখ সন্ধ্যা ৬টায় ‘অ্যাস্ট্রো’ প্রদর্শিত হবে।  একই মিলনায়তনে সাড়ে ৩টায় প্রদর্শিত হবে বাংলাদেশের সিনেমা ‘পোড়ামন ২’।

২০০৭ সালে প্রথম একটি শর্ট ফিল্ম নির্মাণ করেন আসিফ আকবর। বাংলাদেশে সিনেমাটি রিলিজ হবে কিনা প্রশ্নে আসিফ আকবর বলেন, সারা বিশ্বে একসঙ্গে রিলিজ হবে ফিল্মটি। বাংলাদেশ মানে আমার জন্মভূমি তার বাইরে নয়।

‘অ্যাস্ট্রো’র দৃশ্যে গ্যারি ড্যানিয়েল ও কোর্টনি আকবর

বাংলাদেশে আরো সিনেমা প্রযোজনা এবং নির্মাণের ইচ্ছা বলে জানান আসিফ আকবর।

আসিফ বলেন, বাংলাদেশ এবং হলিউডের মধ্যে স্থায়ী সেতুবন্ধ তৈরী করতে চাই আমি।

সোমবার সিনেমাটির ট্রেলার মুক্তি পেয়েছে ইউটিউবে। বাজারজাত করণে প্রথম প্রদর্শনী হবে কান ফিল্ম ফেস্টিভালের ফিল্ম মার্কেটে। প্রদর্শন করবে অ্যাভেইল ফিল্মস।

ট্রেলারে অ্যাস্ট্রো:

বিজ্ঞাপন