চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

অস্কার দৌড়ে বসনিয়া গণহত্যার ঘটনায় নির্মিত ছবি

বসনিয়া গণহত্যার ২৫ বছর পর দেশটির নির্মাতা জাসমিলা জেবানিক নির্মাণ করলেন ‘কুয়ো ভাদিস, আইদা?’

বসনিয়া গণহত্যার ২৫ বছর পর দেশটির নির্মাতা জাসমিলা জেবানিক তার সিনেমায় যুগোস্লাভিয়ার যুদ্ধের কাহিনী তুলে ধরেছেন।

১৯৯৫ সালে স্রেব্রেনিৎসা শহরে বসনিয়ান সার্ব বাহিনীর হাতে হত্যাযজ্ঞের শিকার হন আট হাজার মুসলিম পুরুষ এবং বালক। যুগোস্লাভিয়া ভেঙে টুকরো টুকরো হয়ে যাওয়ার পর এই যুদ্ধের সূচনা হয়েছিল।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

জাসমিলা জেবানিকের ছবিতে এই ঘটনাটি তুলে ধরা হয়েছে। ছবির নাম ‘কুয়ো ভাদিস, আইদা?’ এটি এ বছর অস্কারের আন্তর্জাতিক ফিচার ফিল্মের শর্টলিস্টে স্থান করে নিয়েছে।

চলচ্চিত্রের মূল চরিত্র আইদা। আইদা জাতিসঙ্ঘ শান্তিরক্ষী বাহিনীর একটি টাস্ক ফোর্স ক্যাম্পের অনুবাদকের কাজ করতেন। তার স্বামী ও দুই ছেলে সেই ক্যাম্পে আটক ছিলেন আরো কয়েক হাজার বসনীয় নাগরিকের সাথে। সেখানেই চলে নির্মম হত্যাকাণ্ড।

বিজ্ঞাপন

এক সাক্ষাৎকারে নির্মাতা বলেন, ‘আমি ভুক্তভোগী বহু মানুষের সঙ্গে কথা বলেছি। আমার মনে হয়েছে তাদের প্রত্যেকের ঘটনাই সিনেমা নির্মাণ করার মতো। আরও অনেক সিনেমা হওয়া উচিত এই বিষয়ে। ভাবতাম আমি পারবো না হয়তো। তবে ছবির কাজ শেষ করে মনে হয়েছে, নির্মাতা হিসেবে প্রস্তুত ছিলাম।’

নির্মাতা জানান, রাজনৈতিক বিষয়ে ছবি নির্মাণ করতে গিয়ে নানা সমস্যায় পড়তে হয়েছে তাকে। প্রচুর বাধা এসেছে। বর্তমান মেয়র সার্বিয়ান। তিনি শিকারই করেন না গণহত্যা কখনও হয়েছে। অনেক ভুক্তভোগীও ভয়ে কিছু শিকার করতে চান না। নির্মাতার অনেক তথ্য সংগ্রহ করতে হয়েছে। খুবই কঠিন কাজ ছিল।

জাসমিলা জানান, ৪.৫ মিলিয়ন বাজেট নিয়ে ছবির কাজ শুরু হলেও পরে ৫ শতাংশ বাজেট পাওয়া গেছে বসনিয়া থেকে। এছাড়াও আরও নয়টি দেশ থেকে প্রায় ৭ শতাংশ সহায়তা পাওয়া গেছে।

এই চলচ্চিত্রটির উত্তর আমেরিকায় প্রদর্শনের স্বত্ব কিনে নিয়েছে নিওন লেবেল সুপার লিমিটেড। -হলিউড রিপোর্টার