চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

অষ্টম হয়ে বিশ্বকাপ শেষ টাইগার যুবাদের, আরিফুলের টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরি

জমজমাট ম্যাচে আরিফুলের টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরির পরেও সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে হেরেছে টাইগার যুবারা। এ ম্যাচ হেরে অষ্টম অবস্থানে থেকে বিশ্বকাপ শেষ করল গতবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

বৃহস্পতিবার কলিডজে অনুর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপের সপ্তম স্থান নির্ধারণীর প্লে অফ ম্যাচে সাউথ আফ্রিকার কাছে ২ উইকেটে হেরেছে বাংলাদেশ।

Reneta June

টস জিতে ব্যটিংয়ে নামা বাংলাদেশ এ ম্যাচে দারুণ শুরু পায়। ওপেনিং জুটিতেই আসে ৫৭ রান। ব্যক্তিগত ২৯ রানে আল্ডারের বলে মাহফিজুল আউট হলে ভাঙে জুটি।

বিজ্ঞাপন

পুরো বিশ্বকাপেই ব্যর্থ আইচ শেষ ম্যাচেও ব্যাট হাতে প্রতিরোধ দেখাতে পারেননি। ১৫ বলে ১ রান করে আল্ডারের বলে আউট হন তিনি। ৫ চার ও ১ ছয়ে ৩৮ রান করে আউট হন আরেক ওপেনার প্রান্তিক নওরোজ নাবিল।

এরপর ব্যাটিংয়ে আসেন পাকিস্তানের বিপক্ষে সেঞ্চুরি পাওয়া আরিফুল। পঞ্চম উইকেটে মেহরবের সাথে ১১৭ রানের জুটি গড়ে শক্ত ভিত এনে দেন দলকে।

৩৬ রানে কোপল্যান্ডের বলে মেহরব আউট হলেও টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরি তুলে নিয়েই মাঠ ছাড়েন আরিফুল। ৯ চার ও ৩ ছক্কায় ১০২ রান করে আউট হন বোস্টের বলে ক্যাচ দিয়ে। ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৯৩ রান তুলতে সক্ষম হয় বাংলাদেশের যুবারা।

জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে ষষ্ঠ ওভারে প্রথম উইকেট হারায় সাউথ আফ্রিকা। জেড স্মিথকে ফিরিয়ে বাংলাদেশকে প্রথম সাফল্য এনে দেন মুসফিক হাসান। দ্বিতীয় উইকেটে রোনান হারম্যানকে নিয়ে ৮৬ রানের জুটি গড়ে চাপ সামাল দেন ডেওলাড ব্রেভিস।

ব্যক্তিগত ৪৬ রানে রিপনের বলে আউট হন হারম্যান। দ্রুততম সময়ে আরও ২ টি উইকেট হারিয়ে আবারও চাপে পড়স যায় সাউথ আফ্রিকা। তবে বোস্টকে সাথে নিয়ে ৭৪ রানের অনবদ্য এক জুটি গড়ে আবারও চাপ সামলে নেন ব্রেভিস।

১৩৮ রান করে ব্রেভিস যখন আউট হন দলের প্রয়োজন মাত্র ৩১ রান। খুব সহজেই সে লক্ষ্য টপকে যায় সাউথ আফ্রিকার যুবারা। টানা তৃতীয় হার নিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শেষ করল টাইগার যুবারা।