চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘অবিশ্বাস্য মনে হচ্ছে, সুবীর দা আমাদের মাঝে নেই’

শেষবারের মতো চ্যানেল আই কার্যালয় ঘুরে গেলেন কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী সুবীর নন্দী…

‘যে সুবীর দা ক’দিন আগেই চ্যানেল আইয়ে এসে কথা বলে গেলেন, আগামীতে চ্যানেল আই সেরাকণ্ঠের বাচ্চাদের সাথে কাজ করার আগ্রহ পোষণ করে গেলেন সেই সুবীর দা আমাদের সামনে নিথর দেহে শুয়ে আছেন, খুবই অবিশ্বাস্য মনে হচ্ছে।’

কিংবদন্তি শিল্পী সুবীর নন্দীকে চ্যানেল আই কার্যালয়ের সামনে শেষ শ্রদ্ধা নিবেদনের এক পর্যায়ে তাঁকে নিয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে এভাবেই কথা বলেন চ্যানেল আই ও ইমপ্রেস টেলিফিল্মের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর।

বিজ্ঞাপন

চ্যানেল আই পরিবারের সাথে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিলো সদ্য প্রয়াত সংগীতশিল্পী সুবীর নন্দীর। প্রায়শই তিনি চ্যানেল আইয়ের লাইভ শোগুলোতে গান গাইতে আসতেন। বুধবার দুপুর দেড়টার দিকে তাঁকে নিয়ে আসা হয় তেজগাঁও চ্যানেল আইয়ের প্রধান কার্যালয়ে। তাকে বহনকারী লাশবাহী গাড়িটি চ্যানেল আইয়ে প্রবেশের পর পরই জড়ো হয় চ্যানেল আই পরিবার। সবার চোখে মুখে তখন ছিলো আপনজন হারানোর শোক।

শুধু চ্যানেল আই পরিবার নয়, ইমপ্রেস টেলিফিল্ম, ইনসেপ্টাসহ ক্ষুদে গানরাজ, সেরাকণ্ঠ, আনন্দ আলো, রেডিও ভূমির সদস্যরাও ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান গুণী এই শিল্পীকে। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন দেশের চলচ্চিত্র ও সংগীতের বরেণ্য শিল্পীরা।

শ্রদ্ধা জ্ঞাপন অনুষ্ঠানে ফরিদুর রেজা সাগর বলেন, আমার কাছে অবিশ্বাস্য মনে হচ্ছে যে সুবীর দা এখানে শুয়ে আছেন। ক’দিন আগেই তিনি বলে গেলেন যে, চ্যানেল আই সেরাকণ্ঠে সামনে যারা আসবে, যে নতুন বাচ্চারা আসবে তাদের সাথে তিনি কাজ করবেন। তাদের নিয়ে কাজ করবেন। আমাদের সাথে, চ্যানেল আইয়ের সাথে সুবীর নন্দী নামটি এতো অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িত যে, ভাবতে কষ্ট হচ্ছে যে তিনি আর আমাদের মাঝখানে নেই।

সুবীর নন্দীর প্রয়াণ হয়নি, তিনি সবার মাঝে চিরদিন বেঁচে থাকবেন-এমনটা মন্তব্য করে চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরো বলেন: তাঁকে শ্রদ্ধা জানাতে চ্যানেল আই কার্যালয়ে জড়িত হয়েছেন দেশের বহু গুণী শিল্পীরা, তার গুণমুগ্ধ ভক্ত অনুরাগী, সেরা কণ্ঠ, ক্ষুদে গানরাজসহ দেশের আপামর জনতা। আর সকলের একত্রে জড়ো হওয়ার বিষয়টিই বলে দেয়, সুবীর দা আমাদের মাঝে আছেন। চিরদিন তিনি তাঁর গানের মধ্য দিয়ে আমাদের সাথেই থাকবেন।

পুরো ৩০ মিনিট চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে ছিলেন সুবীর নন্দী। এরপর সেখান থেকে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় রামকৃষ্ণ মিশনে। শেষ কৃত্যানুষ্ঠানের পূর্ব আনুষ্ঠানিকতা শেষে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে সবুজবাগ কালী মন্দির ও শ্মশান ঘাটে। ইতোমধ্যে সেখানে শুরু হয়েছে আনুষ্ঠানিকতা।

ছবি: ওবায়দুল হক তুহিন

Bellow Post-Green View